অগ্নিদগ্ধ নুসরাতের বাড়িতে পুলিশের প্রহরা; আদালতে ৪ আসামীর রিমান্ড মন্জুর

459
নুসরাতের বাড়িতে পুলিশের প্রহরা

।।দেশরিভিউ- জেলা প্রতিনিধি।।

ফেনীর সোনাগাজীতে মাদরাসা ছাত্রীকে পুড়িয়ে হত্যাচেষ্টার পর থেকে তার বাড়িতে পুলিশি নিরাপত্তা জোরদার করা হয়েছে। মঙ্গলবার (৯ এপ্রিল) দুপুরের পর থেকে এ নিরাপত্তা জোরদার করা হয়। মঙ্গলবার সোনাগাজী মডেল থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মো. কামাল হোসেন বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

পুলিশ পরিদর্শক মো. কামাল হোসেন বলেন, তাঁর চিকিৎসার কাজে পরিবারের সবাই ঢাকায় অবস্থান করার কারনে ওই ছাত্রীর বাড়িতে পরিবারের কেউ নেই। অগ্নিদগ্ধ হওয়ার পর ওই ছাত্রীর বাড়িতে যেকোনো ধরনের অপ্রীতিকর ঘটনা যেন না ঘটে, সে জন্য পুলিশি নিরাপত্তা জোরদার করা হয়েছে। ওই বাড়িতে পুলিশের চার জন সদস্য দিনরাত পর্যায়ক্রমে পাহারা দিচ্ছেন। পরবর্তী নির্দেশ না পাওয়া পর্যন্ত সেখানে পুলিশি নিরাপত্তা অব্যাহত থাকবে বলে জানান পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) মো. কামাল হোসেন।

আটক চার আসামীর ৫ দিনের রিমান্ড মন্জুর:

ফেনীর সোনাগাজীর মাদ্রাসাছাত্রী নুসরাত জহান রাফিকে পুড়িয়ে হত্যাচেষ্টার মামলায় আটক চারজনকে পাঁচদিনের রিমান্ডে নেওয়ার আদেশ দিয়েছেন আদালত।

মঙ্গলবার বিকেলে আটক সাতজনকে আদালতে হাজির করে প্রত্যেককে সাতদিন করে রিমান্ডে নেওয়ার আবেদন জানায় সোনাগাজী থানা পুলিশ। জ্যেষ্ঠ বিচারিক হাকিম সরফ উদ্দিন চারজনকে পাঁচদিন করে রিমান্ডে নেওয়ার আদেশ দেন। এঁরা হচ্ছেন আলাউদ্দিন, কেফায়েত উল্লা, নুর হোসেন ও শহীদুল ইসলাম।

গত ২৭ মার্চ সোনাগাজীর ওই মাদ্রাসার অধ্যক্ষ এস এম সিরাজউদ্দৌলা মাদ্রাসা ছাত্রী নুসরাত জাহান রাফিকে আলিম পরীক্ষার আধা ঘণ্টা আগে প্রশ্নপত্র দেওয়ার বিনিময়ে অনৈতিক প্রস্তাব দেন এবং জোরজবরদস্ত শ্লীতহানীর চেষ্টা করেন। ওই দিনই নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে থানায় মামলা করেন নুসরাতের মা। এই মামলাতে অভিযুক্ত অধ্যক্ষ গ্রেপ্তার হয়ে বর্তমানে কারাগারে আছেন। অভিযোগ আছে,  তখন থেকেই নুসরাতের পরিবারকে নানাভাবে হুমকি দেওয়া হচ্ছিল। ৬ এপ্রিল সকাল পৌনে ১০টার দিকে নুসরাত আরবি প্রথম পত্র পরীক্ষা দিতে গেলে বোরকা পরা একটি মেয়ে তাঁকে জানান, নিশাত নামের এক বান্ধবীকে ছাদে মারধর করা হচ্ছে। খবর পেয়ে নুসরাত মাদ্রাসার ভেতরের সাইক্লোন শেল্টারে তৃতীয় তলার ছাদে গেলে অধ্যক্ষের বিরুদ্ধে মামলা তুলে নেওয়ার চাপ দেয়ার এক পর্যায়ে মাদ্রাসাছাত্রী নুসরাতের শরীরে পেট্টোল ছুড়ে আগুন ধরিয়ে দেওয়া হয়। অগ্নিদগ্ধ মাদ্রাসাছাত্রীর অবস্থা খুবই সংকটজনক। 

আরো পড়ুন

জামায়াতী অধ্যক্ষের যৌন হয়রানীর বর্ননা: পুলিশকে অগ্নিদগ্ধ ছাত্রীর জবানবন্দী(ভিডিও)

SHARE