আইটি, জ্বালানি ও আবাসন খাতে বিনিয়োগে আগ্রহী সিঙ্গাপুর

25

বাংলাদেশের আইটি, জ্বালানি এবং আবাসন খাতে বিনিয়োগ করতে আগ্রহী সিঙ্গাপুর। এজন্য তাদের মোট আড়াই হাজার একর জমি বরাদ্দ দেওয়া হবে। সেখানে তারা স্বতন্ত্র ইকোনমিক জোন প্রতিষ্ঠা করবে।

বুধবার (১১ জুলাই) বেলা সাড়ে ১১টায় রাজধানীর একটি হোটেলে সফররত সিঙ্গাপুর ব্যবসায়ী প্রতিনিধিদলের সঙ্গে বৈঠক শেষে একথা জনান বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ।

মন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশের ভালো বন্ধু সিঙ্গাপুর। স্বাধীনতার পর সে দেশের পিতা লি কুয়ান ইউ’র সঙ্গে আমাদের জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সখ্যতা ছিলো। তখনই দুই দেশের সহযোগিতা শুরু হয়েছিলো। এখন দুই দেশের মধ্যে চার বিলিয়ন ডলারের ব্যবসা আছে।

তিনি বলেন, সিঙ্গাপুর এদেশে আইটি খাতে বিনিয়োগের বিশেষ আগ্রহ দেখিয়েছে। এছাড়া জ্বালানি, আবাসনখাতে বিনিয়োগের আগ্রহ দেখিয়েছে। সিঙ্গাপুর তাদের বিনিয়োগ জোনে কয়েক বিলিয়ন ডলার বিনিয়োগ করবে।

সিঙ্গাপুর ব্যবসায়ী প্রতিনিধি দলের প্রধান প্রসুন মুখার্জী বলেন, সিঙ্গাপুর বিনিয়োগের ক্ষেত্রে একটি সংরক্ষণবাদী দেশ। কিন্তু আশ্চার্যজনক ভাবে তারা বাংলাদেশকে গুরুত্ব দিচ্ছে। এ ক্ষেত্রে জমি একটা বিষয়। আমি প্রধানমন্ত্রীকে বলেছি, ৫০০ একর জমি, একটি দেশের নিজস্ব জোনের জন্য কিছুই না।

তিনি বলেন, এ জোনে বিনিয়োগের পরিমাণ এখনো ঠিক হয়নি। তবে কয়েক বিলিয়ন ডলারের হবে। এ কাজ সস্পূর্ণ হতে ১২ বছর লাগবে। কেবল জমি উন্নয়ন করতেই তিন বছর লাগবে।

এদিকে সিঙ্গাপুর-বাংলাদেশ চেম্বারের সভাপতি শহিদুল ইসলাম বলেন, ১৯৯৬ সাল থেকে সিঙ্গাপুরের সঙ্গে তোফায়েল আহমদের সস্পর্ক। তার জন্যই সিঙ্গাপুরের সঙ্গে ব্যবসা বাড়ছে। আমরা আমাদের সফর সম্পর্কে আজ তাকে অবহিত করেছি।

দেশরিভিউ/এস এস