আইফোন ১৩ সিরিজের ফোনে থাকছে বড় চমক

91

দেশরিভিউ সংবাদ।।
আইফোন ১২ তে মেতেছিল বিশ্ব। সবকিছু ঠিক থাকলে আসন্ন সেপ্টেম্বরেই আসছে আইফোন ১৩। করোনা মহামারির এই সময়ে এবারও ভার্চুয়াল অনুষ্ঠানের মাধ্যমে আইফোন ১৩ অবমুক্ত করা হবে। এবারের আয়োজনে অ্যাপল ব্যবহার করছে দ্রুতগতির এ১৫ চিপ , ছোট নচ, এবং উচ্চ ক্ষমতাসম্পন্ন ক্যামেরা সেটাপ। বিভিন্ন গণমাধ্যমের প্রকাশিত খবরের ভিত্তিতে বলা যায়, এবারও আইফোন ১২-এর মতো চারটি মডেলের লাইনআপে আসছে আইফোন ১৩।

নতুন আইফোনের এই চারটি মডেল হলো- আইফোন ১৩, আইফোন ১৩ প্রো, আইফোন ১৩ প্রো ম্যাক্স এবং আইফোন ১৩ মিনি। এর মধ্যে আইফোন ১৩ প্রো-তে ১ টেরাবাইট মেমোরি থাকার সম্ভাবনা আছে। এ ছাড়া সর্বোচ্চ ১২০ মেগাহার্টজ পর্যন্ত স্ক্রিনের রিফ্রেশ রেট থাকতে পারে।

আইফোন ১৩ দেখতে অনেকটা এর পূর্বেকার মডেলের মতোই হবে বলে জানা গেছে।

আইফোন ১৩ তে ব্যবহারকারীদের বহুদিনের দাবি পূরণ হচ্ছে। তা হচ্ছে এর নচ।  আইফোন ১২ সিরিজের এর নচ বড় এই কথা অনেককেই বলতে শোনা গেছে। তবে আইফোন ১৩ তে এসে অ্যাপল তাদের ফোনের নচের সাইজ কমিয়েছে। এই ছোট নচ ভিডিও দেখার সময় বাড়তি সুবিধা দেবে বলে ধারণা করছেন টেক গবেষকরা।

ম্যাগসেফ চার্জিংয়ের ক্ষেত্রেও আসছে পরিবর্তন। নতুন আইফোন ম্যাগসেফ চার্জিংয়ের ক্ষমতা আরও বৃদ্ধি পেয়েছে। ম্যাগসেফ ওয়ালেটের সঙ্গে ব্যবহারেও পাওয়া যাবে বাড়তি সুবিধা।

আইফোনের নতুন চারটি মডেলের চারটিতেই ব্যাটারি বাড়ানো হবে বলে জানা গেছে। ধারণা করা হচ্ছে আইফোন ১৩ মিনিতে ৭  শতাংশ, আইফোন ১৩-এ ৯ শতাংশ, আইফোন ১৩ প্রো-তে ৯ শতাংশ, এবং আইফোন ১৩ প্রো ম্যাক্স এ ১৫ শতাংশ বাড়ানো হতে পারে বলে জানিয়েছে নির্ভরযোগ্য ইউটিউব চ্যানেল অ্যাপল এক্সপ্লেইনড।

আইফোনের সবচেয়ে বড় পরিবর্তনটা সবাই যেখানে আশা করেন সেখানেই থাকছে। সেটি হলো এর ক্যামেরা সিস্টেম। তুলনামূলক কম দামের ১৩ এবং ১৩ মিনি মডেলসহ ১৩ সিরিজের সব আইফোনেই ব্যবহার করা হবে নতুন একটি ডায়াগোনাল লেন্স লেআউট। ফলে এতে পাওয়া যাবে আইফোন ১২ এর চেয়েও ভালো লো-লাইট পারফর্মেন্স। আইফোন-১২ এর লো-লাইট পারফর্মেন্স বাজারের সেরা ছিল বললে বেশি বলা হবে না। তবে এবার লো লাইট পারফর্মেন্সে নিজেকে ছাড়িয়ে যাচ্ছে অ্যাপল। উন্নত ইমেজ স্টেবেলাইজেশনের কারণে এতে উঠবে আরও শার্প ছবি।

আইফোন ১৩ এর ভিডিওতেও থাকছে পোর্ট্রেইট মোড। তবে আগের মতোই টেলিফটো লেন্স থাকছে শুধু প্রো এবং প্রো ম্যাক্স মডেলের সঙ্গে। 
উল্লেখ্য,  প্রোরেজ মোডে এবার ভিডিও করার সুযোগ থাকছে আইফোন ১৩ প্রো এবং প্রো ম্যাক্স মডেলগুলোতে। এর ফলে মোবাইলে ধারণ করা ভিডিওতেও ‘র’ ফাইল ব্যবহারের সুযোগ আসায় ভিডিও সম্পাদনায় আসবে বৈপ্লবিক পরিবর্তন।

১২-এর মতই প্রো এবং প্রো ম্যাক্স মডেলগুলোতে থাকছে টেলিফটো লেন্সে থাকছে ২.৫এক্স অপটিকাল জুম, ১২এক্স ডিজিটাল জুম। এ ছাড়াও আইফোন ১৩ প্রো এবং প্রো ম্যাক্স-এ থাকছে প্রোমোশন ডিসপ্লে, যা স্ক্রিনের রিফ্রেশরেটকে দ্বিগুণ অর্থাৎ ৬০ হার্জ থেকে ১২০ হার্জ করে দেবে। ১২০ হার্জের ডিসপ্লে অ্যানিমেশন স্ক্রলিংয়ের অভিজ্ঞতাকে আরও অনেক গতিশীল করবে।

দামের ব্যাপারে অ্যাপল এক্সপ্লেইনড জানায়, ধারণা করা হচ্ছে আইফোন ১২-এর দামের কাছকাছি দামেই বিক্রি করা হবে আইফোন ১৩ সিরিজের সেটগুলো। সে অনুযায়ী আইফোন ১৩ মিনি ৬৯৯ ডলার, আইফোন-১৩ ৭৯৯ ডলার, আইফোন ১৩ প্রো ৯৯৯ ডলার, আইফোন ১৩ প্রো ম্যাক্স ১০৯৯ ডলারে পাওয়ার কথা।

SHARE