আমৃত্যু মহাপরিচালক আহমদ শফী, বাবুনগরীর চেয়ারে শেখ আহমেদ

199

।। দেশরিভিউ, চট্টগ্রাম ।।

ঐতিহ্যবাহী হাটহাজারী দারুল উলুম মাদ্রাসার পরিচালনা কমিটির মইনে মোহতামিম বা সহকারী পরিচালক জুনায়েদ বাবুনগরীকে সরিয়ে আহমদ শফীর ছেলে শেখ আহমেদকে দায়িত্ব দেয়া হয়েছে। মহাপরিচালক হিসেবে আমৃত্যু দায়িত্ব পালন করবেন বর্তমান মহাপরিচালক ও হেফাজতে ইসলামীর আমীর মাওলানা শাহ আহমদ শফী।

বুধবার (১৭ জুন) হাটহাজারী দারুল উলুম মাদ্রাসায় শুরা কমিটির বৈঠক এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। বৈঠকের উপস্থিত সূত্র দেশরিভিউকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছে।

এর আগে সকালে হাটহাজারী দারুল উলুম মাদ্রাসায় শুরা কমিটির বৈঠক শুরু হয়। সেখানে প্রথমে বাবুনগরীকে রাখা হয়নি। বৈঠক শুরুর দুই ঘণ্টা পর বাবুনগরীকে বৈঠকে ডাকা হয়।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক হেফাজতে ইসলাম নেতা গণমাধ্যমকে জানিয়েছেন, বাবুনগরী শুরা কমিটির সদস্য না তাই তাকে বৈঠকে রাখা হয়নি।

তবে মাদ্রাসার আরেকটি সূত্র জানিয়েছে, ২০১৭ সালে অনুষ্ঠিত শুরা কমিটির বৈঠকে আল্লামা জুনায়েদ বাবুনগরীকে শুরা সদস্য করা হয়। ওই সময় তাকে মাদ্রাসার সহযোগী পরিচালক করা হয়।

যদিও সম্প্রতি একটি ভিডিও বার্তায় মাদ্রাসার মহাপরিচালক ও হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশের আমির আল্লামা শাহ আহমদ শফী জানিয়েছেন, ‘কাউকে ভারপ্রাপ্ত মহাপরিচালক বা সহকারী পরিচালক পদ দেওয়া হয়নি।

হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশের এক নেতা বলেন, রোববার সকালে এ বৈঠকের বিষয়ে শুরা সদস্যদের চিঠি আমন্ত্রণ জানানো হয়।

হাটহাজারী দারুল উলুম মাদ্রাসার শুরা কমিটির কয়েকজন জানান, কয়েক মাস ধরে আহমদ শফীর শরীর খুব একটা ভালো নয়। এরইমধ্যে চট্টগ্রাম ও ঢাকার বেশ কয়েকটি হাসপাতালে চিকিৎসা নিয়েছেন তিনি। সর্বশেষ চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের আইসিইউতে এক সপ্তাহ কাটিয়ে শারীরিকভাবে খানিকটা সুস্থ বোধ করায় গত সোমবার (১৫ জুন) মাদ্রাসায় ফিরেছেন তিনি।

তারা আরও বলেন, শফীর অসুস্থতার সময় আল্লামা জুনায়েদ বাবুনগরী মাদ্রাসার ভারপ্রাপ্ত মহাপরিচালক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। তখন মাদ্রাসার পরিচালকের পদ নিয়ে মতবিরোধ সৃষ্টি হয়।

SHARE