ইউটিউবে নিয়ন্ত্রণ বাড়ছে অভিভাবকদের

131

ইউটিউব কিডস অ্যাপ এবার নতুন উদ্যোগের দিকে ঝুঁকেছে। ইউটিউবের প্যারেন্ট কোম্পানি গুগল অভিভাবকদের নিয়ন্ত্রণ আরও জোরদার করবে বলে জানিয়েছে। এখন থেকে অভিভাবকরা চাইলে মর্ডারেটরদের নির্ধারিত ভিডিওগুলো প্লেলিস্টে যোগ করতে পারেন।

আর এর ফলে ইউটিউব অ্যালগরিদমের বাছাইকৃত কনটেন্টগুলো আর দেখানো হবে না। গতকাল ইউটিউব তাদের প্ল্যাটফর্মে নতুন তিনটি সেটিংস যুক্ত করার ঘোষণা দিয়েছে। সেটিংসগুলো হলো:

১. অভিভাবকরা যদি চান তাহলে কিছু চ্যানেলকে ‘ট্রাস্টেড’ হিসেবে সিলেক্ট করে করতে পারবেন।

২. চাইলে হিউম্যান মর্ডারেটরদের অনুমোদন ছাড়া কোনো চ্যানেলের ভিডিও সাজেশন দেখানো বন্ধ রাখা যাবে।

৩. বাচ্চাদেরকে নির্দিষ্ট কিছু শেখাতে চাইলে অভিভাবকরা বাছাইকৃত চ্যানেল ও ভিডিও সিলেক্ট করে দিতে পারবেন।

গত কয়েক মাস ধরেই শিশুদের অনুপযোগী ভিডিও সাজেশন বারে দেখানো নিয়ে সমালোচনার মুখোমুখি হয় আসছিল ইউটিউব। তারা এ সমস্যা নিয়ে যাচাইবাছাই করছিল। আর সেই সূত্র ধরেই এই সুবিধা এনেছে। সবাই আশাবাদী যে এতে করে অভিভাবকদের আস্থা অর্জন করতে পারবে তারা।

এ বিষয়ে ইউটিউবের কর্মকর্তা মালিক ডুকার্ড বলেছেন, আমরা কখনো ব্যবহারকারীদের ফিডব্যাক নেওয়া বন্ধ করবো না। অ্যাপটির উন্নয়নের কাজ আমার চালিয়ে যাবো।

এই নতুন ফিচারগুলো আগামী কয়েক মাসের মধ্যেই উন্মোচন করা হবে। এই ফিচারের ধারাবাহিকতায় ভবিষ্যতে অভিভাবকদের জন্য ভিডিও ব্লক করার অপশনও যুক্ত করবে ইউটিউব।

দেশরিভিউ/শিমুল

SHARE