ঐতিহাসিক টেষ্টের প্রথম ইনিংসে বিধ্বস্ত বাংলাদেশ

67

দেশরিভিউ স্পোর্টস ডেস্কঃ

কলকাতার ইডেন গার্ডেনসে কৃত্রিম আলো আর গোলাপি বলের চ্যালেঞ্জে ভারতের মুখোমুখী হয়ে ১০৬ রানে গুটিয়ে গেছে বাংলাদেশ।

শুক্রবার দিবারাত্রির টেস্টে টস জিতে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয় বাংলাদেশ। তবে ব্যাটিংয়ে নেমে ব্যাটসম্যানদের দায়িত্বহীনতায় ৩০.৩ ওভারে ১০৬ রানে অলআউট হয়ে যায় বাংলাদেশ।

দলীয় ১৫ রানের মাথায় বিদায় নেন ইমরুল।

তার আগে ১৫ বলে করেন মাত্র ৪ রান। এরপর তিন নম্বরে নামা মুমিনুল হক ৭ বলে শূন্য রানে আউট হন। এর এক বল পরে শূন্য রানে সাজঘরে ফিরেন মোহাম্মদ মিথুন।

এদিকে, দলীয় ২৬ রানের মাথায় বিদায় নেন মুশফিকুর রহিম। বোল্ড হওয়ার আগে কোনো রান পাননি মুশফিক। দলীয় ২৬ রানের মাথায় বাংলাদেশ তাদের চতুর্থ উইকেট হারায়। দলীয় ৩৮ রানের মাথায় বিদায় নেন ওপেনার সাদমান ইসলাম (২৯)।

পাঁচ উইকেট হারানো বিপাকে পড়া দলকে ভরসা দিচ্ছিলেন মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ এবং লিটন দাস।

এই জুটিতে এসেছে ২২ রান। দলীয় ৬০ আর ব্যক্তিগত ৬ রানে ইশান্ত শর্মার বলে উইকেটের পেছনে ধরা পরেন মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ। দ্বিতীয় সেশনে ব্যাট হাতে নামেননি লিটন দাস। ইশান্ত শর্মার তৃতীয় শিকারে ফেরেন ৭ রান করে বোল্ড হওয়া এবাদত হোসেন। বাংলাদেশ দলীয় ৮২ রানের মাথায় সপ্তম উইকেট হারায়।

মাথায় বলের আঘাত লাগায় আম্পায়ারের অনুমতি নিয়ে ক্রিজ ছাড়েন লিটন দাস। টেস্টের নতুন নিয়ম অনুযায়ী লিটন ব্যাট করতে না পারলে কনকাশন রিপ্লেসমেন্ট (বদলি খেলোয়াড়) হিসেবে অন্য কেউ নামতে পারবেন। রিটায়ার্ড হার্ট হওয়ার আগে তিনি করেন ২৪ রান। কনকাশন রিপ্লেসমেন্ট হিসেবে তার জায়গায় আসেন মেহেদি হাসান মিরাজ। তবে, বেশিক্ষণ টিকতে পারেননি মিরাজ। দলীয় ৯৮ রানের মাথায় ইশান্ত শর্মার চতুর্থ শিকারে ফেরেন ১৩ বলে ৮ রান করা মিরাজ।

নবম ব্যাটসম্যান হিসেবে বিদায় নেন নাঈম হাসান। ইশান্ত শর্মার পঞ্চম শিকারে ফেরার আগে তিনি ২৮ বলে করেন ১৯ রান। শেষ ব্যাটসম্যান হিসেবে বিদায় নেন আবু জায়েদ রাহি। মোহাম্মদ শামির বলে ফেরার আগে কোনো রান পাননি তিনি।

ম্যাচে ইশান্ত শর্মা ৫টি, উমেস যাদব তিনটি আর মোহাম্মদ শামি দুটি করে উইকেট তুলে নেন।

SHARE