করোনার আতঙ্কের মাঝেই একের পর এক কাক ও কুকুরের মৃত্যু

144


।।দেশরিভিউ আন্তর্জাতিক সংবাদ।।
করোনার আতঙ্কের মাঝেই একের পর এক কাক ও কুকুরের মৃতদেহের দেখা মিলেছে। এ ঘটনাকে ঘিরে আলোড়ন পড়ল কলকাতার পূর্ব বর্ধমানের ভাতারের বলগোনায়। ঠিক কি কারণে এই মৃত্যু তা খতিয়ে দেখছে প্রশাসন।

জানা গেছে, পূর্ব বর্ধমান জেলার ভাতার ব্লকের বলগোনায় রবিবার হঠাৎ করেই বেশ কয়েকটি কাক ও কুকুরের মৃত্যু হয়। এ নিয়ে এলাকায় চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়ে।  কেন এই মৃত্যু তা জানতে তৎপর হয়ে পড়েন আতংকিত বাসিন্দারা। খবর দেওয়া হয় থানায়, বি ডি ও অফিসে। খবর পেয়ে  প্রশাসনিক আধিকারিকরা ঘটনাস্থলে যান । বলগোনা গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রধান আমজাদ শেখও খবর পেয়ে এলাকায় পৌঁছন।  অনেকে করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ বলে চাউর করে দেন।

প্রশাসনের তরফ থেকে জানানো হয়,  করোনা ভাইরাসের সঙ্গে এই পশু বা পাখি মারা যাওয়ার কোনও সম্পর্ক নেই। কোনও বিষক্রিয়া থেকে এই ঘটনা ঘটে থাকতে পারে। মৃত্যুর সঠিক কারণ জানতে মৃত কাক ও কুকুরের ময়না তদন্ত হবে। ময়না তদন্তের রিপোর্টে আসল কারণ জানা যাবে। স্থানীয় বাসিন্দারা জানিয়েছেন, বিকেল পর্যন্ত দশটি কুকুর ও  ২০টি কাক মারা গেছে।

রাজ্যের প্রাণি সম্পদ দপ্তরের আধিকারিক শঙ্খ ঘোষ জানান, করোনা ভাইরাসের জন্য ওই সমস্ত কাক মারা যায়নি। এলাকার বাসিন্দাদের  গুজব না ছড়ানোর পরামর্শ দেওয়া হয়েছে। কি কারণে কুকুর বা কাক মারা গেছে তা জানতে আমরা তথ্য সংগ্রহ করেছি। আগামীকাল তার রিপোর্ট জানিয়ে দিতে পারব বলে আশা করছি।
ভাতার ব্লকের পশু রোগ চিকিৎসক নির্মল মন্ডল জানান, আমরা  ওই সমস্ত মৃত সারমেয় ও কাক মাটিতে পুঁতে দিয়েছি এবং কিছু নমুনা সংগ্রহ করেছি। সেগুলিকে ল্যাবরেটরিতে পাঠানো হচ্ছে।

SHARE