করোনার দ্বিতীয় দফায় আঘাত মোকাবিলায় নেতাকর্মীদের প্রস্তুত থাকার নির্দেশ

76


দেশরিভিউ সংবাদ:
করোনা ভাইরাস সংক্রমণের দ্বিতীয় দফায় আঘাত আসতে পারে তাই দলের নেতাকর্মীদের প্রস্তুত থাকার নির্দেশ দিয়েছেন আওয়ামী লীগ সভাপতি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

বুধবার (১৬ সেপ্টেম্বর) আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সভায় তিনি এ নির্দেশ দেন। করোনা সংক্রমণ শুরু হওয়ার দীর্ঘ প্রায় ছয় মাস পর গণভবনে শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর এ সভা অনুষ্ঠিত হলো। সভা শেষে আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর একাধিক সদস্যের সঙ্গে কথা বলে এসব তথ্য জানা যায়। সূত্র জানায়, সভায় করোনা পরিস্থিতি মোকাবিলায় এ পর্যন্ত সরকার ও আওয়ামী লীগের নেওয়া পদক্ষেপগুলো নিয়ে আলোচনা হয়।

চলমান করোনা পরিস্থিতির আবার অবনতি হতে পারে এবং দ্বিতীয় দফায় করোনা সংক্রমণ আঘাত করতে পারে বলে সভায় আশঙ্কা প্রকাশ করা হয়।

এসময় আওয়ামী লীগ নেতারা করোনা পরিস্থিতি সফলভাবে মোকাবিলা করা জন্য দলের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ধন্যবাদ জানান।

এই করোনা পরিস্থিতি মোকাবিলায় এগিয়ে আসা এবং মানুষের পাশে থেকে বিভিন্নভাবে সহযোগিতা করায় আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদেরও ধন্যবাদ জানান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

সভায় করোনার সার্বিক পরিস্থিতি নিয়ে আলোচনার সময় আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা দলের নেতাদের উদ্দেশ্যে বলেন, করোনা পরিস্থিতির আবারও অবনতি হতে পারে‌। দ্বিতীয় দফায় আবার বড় ধরনের আঘাত আসতে পারে। ইউরোপের কোনো কোনো দেশে দ্বিতীয় দফায় সংক্রমণ শুরু হয়েছে। এজন্য সবাইকে সতর্ক থাকতে হবে। প্রস্তুত থাকতে হবে যেকোনো পরিস্থিতি মোকাবিলার জন্য। করোনা পরিস্থিতির মধ্যে এসময় দলের নেতাকর্মীরা যেভাবে মানুষের পাশে দাঁড়িয়ে সহযোগিতা করেছেন আগামীতেও যেকোনো পরিস্থিতি মোকাবেলায় সেভাবেই মানুষের পাশে থাকতে হবে।
দলের নেতারাও করোনা পরিস্থিতি মোকাবেলায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ধন্যবাদ জানিয়ে বক্তব্য রাখেন।
সূত্র আরও জানায়, এ সভায় দলের সাংগঠনিক পরিস্থিতি নিয়েও আলোচনা হয়। আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা দলের যেসব সহযোগী সংগঠনের সম্মেলনের পর এখনও পূর্ণাঙ্গ কমিটি দেওয়া হয়নি সে কমিটিগুলো দ্রুত দিয়ে দেওয়ার নির্দেশ দেন। এছাড়া আওয়ামী লীগের জেলা-উপজেলাসহ যেসব ইউনিটের সম্মেলন ইতোমধ্যে হয়েছে কিন্তু পূর্ণাঙ্গ কমিটি এখনো হয়নি সেগুলোও দ্রুত দিয়ে দেওয়ার নির্দেশ দেন তিনি। পাশাপাশি দলের ত্যাগীরা যাতে নতুন কমিটিতে স্থান পায় সেদিকেও লক্ষ্য রাখার নির্দেশ দেন।
শেখ হাসিনা বলেন, নতুন এবং পুরাতনদের মিলিয়ে কমিটি দিতে হবে। যারা দলের জন্য সব সময় কাজ করে, যারা ত্যাগী তাদের কমিটিতে নিয়ে আসতে হবে।

SHARE