কেন্দ্রীয় ছাত্রদলের ৭৩৬ জনের ‘ঢাউস কমিটি বিলুপ্ত‘

105
ব্যর্থতার ষোলআনা পূর্ন করে বিদায় নিয়েছে কেন্দ্রীয় ছাত্রদলের কমিটি।

।।দেশরিভিউ, ঢাকা।।
ব্যর্থতার ষোলআনা পূর্ন করে কেন্দ্রীয় ছাত্রদলের ৭৩৬ জনের ঢাউস কমিটি অবশেষে বিদায় নিয়েছে। গতকাল (০৩ জুন) রাতে বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভীর স্বাক্ষরিত প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে নানা বিতর্ক ও ব্যর্থতার জন্ম দেয়া এ কমিটি বিলুপ্তির তথ্য জানানো হয়।
সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে আগামী ৪৫ দিনের মধ্যে জাতীয়তাবাদী ছাত্রদলের কাউন্সিলরদের মতামতের ভিত্তিতে নতুন কেন্দ্রীয় সংসদ গঠন করা হবে বলেও জানানো হয়েছে।

২০১৪ সালের ১৪ অক্টোবর রাজীব আহসানকে সভাপতি ও মো. আকরামুল হাসানকে সাধারণ সম্পাদক করে ছাত্রদলের কেন্দ্রীয় কমিটির অনুমোদন দেন খালেদা জিয়া। কমিটি নিয়ে বিরোধ ও তার রেশ ধরে দাঙ্গা হাঙ্গামার ১৫ মাস পর জাতীয়তাবাদী ছাত্রদলের পূর্ণাঙ্গ কেন্দ্রীয় কমিটি অনুমোদন করা হয়েছে। গঠনতন্ত্র অনুযায়ী সংগঠনটির কেন্দ্রীয় কমিটি ১৫১ সদস্যের হলেও এবার জায়গা পেয়েছিলেন ৭৩৬ জন।

কমিটির পরপরেই স্থান পাওয়া নেতাদের অধিকাংশের বিরুদ্ধে অছাত্র,বিবাহিতের অভিযোগ উঠে। তবে এসব বিষয়ে কখনোই আমলেই নেয়নি বিএনপি নীতিনির্ধারকরা। কমিটিতে ৪০ অধিক বয়সের নেতা ছিলেন নূন্যতম ২০০ জন। ৭৩৬ জনের এই ঢাউস কমিটি দীর্ঘ ৫ বছর সময় ধরে দায়িত্ব পালন করলেও মূলত সবাই ছিলেন নিষ্ক্রিয়।

বিগত জাতীয় নির্বাচন, সরকার বিরোধী আন্দোলন এমনকি খালেদা জিয়ার মুক্তি আন্দোলন নিয়েও ছাত্রদলের নেতাদের চেহারা রাজপথে দেখা যায়নি। সর্বশেষ ডাকসু নির্বাচনেও ছাত্রদল পূর্ণাঙ্গ প্যানেল দিতে পারেনি। ডাকসুতে ভিপি পদে ছাত্রদলের প্রার্থী মাত্র ২৪৫ ভোট, জিএস পদে ৪৬২ ভোট এবং এজিএস পদে মাত্র ২৯৪ ভোট পেয়ে মুখে চুনকালি মেখেছিলো। এমন অবস্থায় গতরাতে কেন্দ্রীয় ছাত্রদলের এই কমিটি বিলুপ্তির ঘোষনা আসে।

দেশরিভিউ/ঢাকা

SHARE