খালেদা জিয়াকে জামিনে অথবা প্যারলে মুক্তি পেতে হবে

178


।।সাজিদুল ইসলাম শোভন, নড়াইল।।

বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারন সম্পাদক আব্দুর রহমান বলেন, বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হাতে নেই। দু’টি পদ্ধতিতে খালেদা জিয়া মুক্তি পেতে পারেন। একটি হল-জামিনে মুক্তি, অন্যটি প্যারলে মুক্তি। জামিনে মুক্তি সম্পূর্ণ আদালতের বিষয়। আর যদি তিনি (খালেদা জিয়া) প্যারোলে মুক্তি চান, তাহলে বিষয়টি চিকিৎসকেরা পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে দেখবেন; তাকে চিকিৎসার জন্য বিদেশে পাঠাতে হবে কিনা। খালেদা জিয়া যে মামলায় কারাগারে আছেন, সেটি কোন রাজনৈতিক মামলা নয়। মামলাটি বিগত তত্ত্বাবধায়ক সরকারের সময়ে দায়েরকৃত বল জানান এসময় তিনি।

সোমবার (১৩ মে) দুপুরে নড়াইল জেলা আওয়ামী লীগের বিশেষ বর্ধিত সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখতে গিয়ে আওয়ামী লীগ নেতা আব্দুর রহমান আগামী এছাড়া আগামী ২৫ সেপ্টেম্বর নড়াইল জেলা আওয়ামী লীগের সম্মেলনের তারিখ ঘোষণা করেন। এর আগে সকল উপজেলা ও ইউনিয়নের সম্মেলন শেষ করার নির্দেশও দেন তিনি।

নড়াইল জেলা সদরের চিত্রা রিসোর্ট চত্বরে বিশেষ এ বর্ধিত সভায় জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি অ্যাডভোকেট সুবাস চন্দ্র বোসের সভাপতিত্বে প্রধান বক্তা ছিলেন দলের সাংগঠনিক সম্পাদক সংসদের হুইপ আবু সাইদ আল মাহমুদ স্বপন এমপি। এছাড়াও বক্তব্য রাখেন দলের শ্রম ও জনশক্তি বিষয়ক সম্পাদক হাবিবুর রহমান সিরাজ, নড়াইল-১ আসনের সংসদ সদস্য বিএম কবিরুল হক মুক্তি, আওয়ামী লীগের কার্যনির্বাহী সদস্য এস এম কামাল হোসেন, আমিরুল আলম মিলন ও পারভীন জাহান কল্পনা।

এর আগে জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সদর উপজেলা চেয়ারম্যান নিজাম উদ্দিন খান নিলুর পরিচালনায় বক্তব্য রাখেন নড়াইল পৌর মেয়র জাহাঙ্গীর বিশ্বাস। তৃণমূলের প্রতিনিধি হিসাবে সংগঠনের বিভিন্ন বিষয় নিয়ে বক্তব্য রাখেন লোহাগড়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও উপজেলা চেয়ারম্যান সিকদার আব্দুল হান্নান রুনু, কালিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও উপজেলা চেয়ারম্যান কৃষপদ ঘোষ, সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি অ্যাডভোকেট অচিন চক্রবর্তী, নড়াগাতি থানা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক খাজা নাজিম উদ্দিন প্রমুখ।

সভায় বক্তারা সংগঠনকে আরো শক্তিশালী ও সুসংগঠিত করতে তৃণমূল নেতাকর্মীদের ঐক্যবদ্ধ হয়ে কাজ করার বিষয়ে গুরুত্ব আরোপ করেন। এছাড়া জাতীয় সম্মেলনের আগে তৃণমুল পর্যায়ের সম্মেলন সম্পন্ন করার জন্য স্থানীয় নেতৃবৃন্দকে অনুরোধ জানানো হয়। সম্মেলনে জেলা, উপজেলা, থানা, পৌর ও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ এবং সহযোগী সংগঠনের বিপুল সংখ্যক নেতাকর্মী উপস্থিত ছিলেন।

SHARE