গাজীপুর ও খুলনায় কারা হচ্ছেন নৌকার মাঝি ?

41

ঘনিয়ে আসছে গাজীপুর ও খুলনা সিটি কর্পোরেশন নির্বাচন। কিন্তু প্রার্থী এখনো চুড়ান্ত না হওয়ায় চলছে  প্রার্থী ও ভোটারদের মধ্যে চরম উত্তেজনা । কারা পাচ্ছেন মনোনয়ন, কানাঘোষা চলছে এ নিয়ে । এদিকে দল থেকেও এখনো জানানো হয়নি যে, কারা পাচ্ছেন নৌকা প্রতিক ।

প্রার্থী চূড়ান্ত করতে রোববার সন্ধ্যা ৭টায় আওয়ামী লীগের মনোনয়ন বোর্ডের সভা অনুষ্ঠিত হবে।  সভা থেকে গাজীপুর ও খুলনা সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে মেয়র এবং সারাদেশের ১৩টি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান পদে প্রার্থী চূড়ান্ত করা হবে।

আগামী ১৫ মে গাজীপুর সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনকে ঘিরে গাজীপুরে  বিভিন্ন ওয়ার্ডের সাধারণ ও কাউন্সিলর পদে ২০জন মনোনয়নপত্র ও ভোটার তালিকার সিডি সংগ্রহ করছেন। মেয়র পদে গাজীপুরে ১০ জন মনোনয়ন প্রত্যাশী ফরম জমা দিয়েছেন। তারা হলেন, আজমতউল্লাহ খান, জাহাঙ্গীর আলম, সাইফুল ইসলাম, মতিউর রহমান, কামরুল আহসান সরকার রাসেল, সুমন আহমেদ শান্ত বাবু, কাজী আলিমুদ্দিন, আব্দুর রব নয়ন, মো. ওয়াজেদুল মিয়া ও মো. শামসুল বারী।

মনোনয়নপত্র উত্তোলন ও জমা দেয়ার শেষ সময় হলো ১২এপ্রিল, তা যাচাই-বাছাই হবে ১৫-১৬এপ্রিল এবং প্রার্থীতা প্রত্যাহারের শেষ সময় হলো ২৩ এপ্রিল। ২৪এপ্রিল প্রার্থীদের প্রতীক বরাদ্দ দেয়া হবে।

এ নির্বাচনে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন সংগ্রহ করেছেন ৯ জন। গাজীপুর মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি আজমতউল্লাহ খান, সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলম, যুবলীগ নেতা সাইফুল ইসলাম, মতিউর রহমান, কামরুল আহসান সরকার রাসেল, সুমন আহমেদ শান্ত বাবু, কাজী আলিম উদ্দিন, আব্দুর রউফ নয়ন, ওয়াজউদ্দিন মিয়া।

গাজীপুর সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে ভোটার সংখ্যা ১১ লাখ ১৬ হাজার ৩ শত ৪৮ জন ।

অন্যদিকে, খুলনার জন্য ৬ জন মনোনয়ন প্রত্যাশী ফরম জমা দিয়েছেন। তারা হলেন, আনিসুর রহমান, এনায়েত হোসেন, মো: সাইফুল ইসলাম, মো: শহিদুল হক মিন্টু, শেখ সৈয়দ আলী এবং শেখ মোশাররফ হোসেন।

খুলনা সিটি কর্পোরেশন নির্বাচন সফলভাবে সম্পন্ন করতে ৩১শে মার্চ নির্বাচনের তফসিল ঘোষণার পর কাজ শুরু করেছে  নির্বাচন কমিশন ।তফসিল ঘোষণার পহেলা এপ্রিল থেকে মনোনয়নপত্র বিক্রির আহবান জানিয়ে গণবিঞ্জপ্তি প্রকাশ করা হয়েছে।

বিজ্ঞপ্তির পাশাপাশি অন্যান্য কিছু প্রস্তুতিমূলক কাজ ও সিটির কেন্দ্রের তালিকা সরেজমিনে যাচাই বাছাই করে  নির্ধারিত সময়ের মধ্যেই প্রস্তুত করে কমিশনের কাছে দেয়া হবে বলে জানান,বিভাগীয় নির্বাচন কর্মকর্তা মো: ইউনুস আলী।

এদিকে নির্বাচনী আচরণ বিধি যাতে লঙ্ঘন না হয় সেই লক্ষে আগামী ৮ এপ্রিলের মধ্যে নগরীর সকল ব্যানার অপসারণের নির্দেশ দিয়েছে নির্বাচন কমিশন। এবং এজন্য একটি কমিটি সার্বক্ষণিক কাজ করছে বলে জানান, বিভাগীয় নির্বাচন কর্মকর্তা।

এই খুলনা সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে মেয়র পদে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন সংগ্রহ করেছেন সরদার আনিসুর রহমান ও কাজী এনায়েত হোসেন।

সর্বশেষ ২০১৩ সালের ১৫ জুন খুলনা সিটি কর্পোরেশনের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। এবং নির্বাচনে ৬ নং ওয়ার্ডে ইভিএম পদ্ধতিতে ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়। তবে এ বিষয়ে এখনও সুনির্দিষ্ট প্রস্তাব আসেনি। বর্তমানে খুলনা সিটি কর্পোরেশনে ভোটার সংখ্যা ৪ লাখ ৯৩ হাজার ৯২ জন।

দেশরিভিউ/ আরিফুল ইসলাম

SHARE