গান গাইতে গিয়ে গলা ভাঙলো নোবেলের

661

।।সাদমান শাহরিয়ার, যুক্তরাষ্ট্র।।

খারাপ সময় তার পিছু ছাড়ছেই না। বর্তমান প্রজন্মের বিশাল একটি অংশ ‘সা রে গা মা পা’ খ্যাত মাইনুল আহসান নোবেল’কে বাংলাদেশের ভবিষ্যত রকস্টার দাবী করে থাকেন। অথচ এই রকস্টার নোবেল আমেরিকার ইউনিভার্সিটি অব হোস্টেনের একটি হলরুমে আয়োজিত লাইভ কনসার্টে কয়েকটি গান গাইতে গিয়েই গলার সুর হারিয়ে ফেলেছেন।

৭ সেপ্টেম্বর শনিবার এই কনসার্টে দর্শকদের অনুরোধকে অগ্রাহ্য করে নোবেল আর কোন গান করেননি।

যদিও দর্শকদের অনুরোধের জবাবে নোবেল বলেন, আমি আরো দশটি গান গাইবো। তবে অন্য কোন শো’তে। আজ আমার গলা পুরা ভেঙ্গে গেছে।

এর আগে অনুষ্ঠানের শুরুর দিকে দর্শকদের উদ্দেশ্যে নোবেল বলেন ‘গান গাওয়া শিখেছি কিন্তু এখনো পারফর্ম করা শিখি নাই। এটা আমার ৬/৭ নাম্বার লাইভ কনসার্ট। তাই গানের সাথে হাত পা নেড়ে স্বাচ্ছন্দ পাচ্ছিনা। আস্তে আস্তে শিখে ফেলবো।’

এদিকে সর্বোচ্চ ৫০০ ডলার এবং সর্বনিম্ন ৫০ ডলার দামের টিকেট কিনে গান উপভোগ করতে আসা দর্শকদের অনেকেই নোবেলের গান শুনে হতাশ হয়েছেন, ক্ষুব্দ হয়েছেন অনেকে।!আজমিন খান নামের এক আমেরিকা প্রবাসী সাংস্কৃতিক কর্মী অভিযোগের সুরেই নোবেলের গায়কি ও যোগ্যতা নিয়ে প্রশ্ন তোলেন।

দেশরিভিউকে আজমিন খান বলেন, এতো দাম দিয়ে টিকেট কিনেছি লাইভ গান শুনার জন্য। নোবেল একজন গিটারিষ্ট নিয়ে লাইভ গান করতে এসেছেন। কি-বোর্ড, ড্রাম কিংবা বেইচ গিটারের সুর ল্যাপটপে রেকর্ড করে নিয়ে এসেছেন। এভাবে ধরাবাধা কৃত্রিম সুরের সাথে কন্ঠ মিলিয়ে কখনো বড় সঙ্গীতশিল্পী হওয়া যায় না।

SHARE