গৃহবধূর মুখে ওড়না বেঁধে গণধর্ষন করলো বিএনপি’র পৌর মেয়র

5845


।।দেশরিভিউ, স্থানীয় প্রতিনিধি।।
দিনাজপুরের পার্বতীপুর উপজেলা বিএনপি’র সহ সভাপতি এবং পৌরসভার মেয়র এ জেড এম মেনহাজুল হকের বিরুদ্ধে এক গৃহবধূকে গণধর্ষণ ও হত্যাচেষ্টার অভিযোগ উঠেছে। পৌর মেয়র মেনহাজুল হক বিএনপি’র সাবেক সাংসদ ও কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য এ জেড এম রেজওয়ানুল হকের ছোট ভাই।

গতকাল বুধবার বিকেলে ওই নারী পার্বতীপুর প্রেস ক্লাবে সংবাদ সম্মেলনে বলেন, তাঁকে পৌরসভায় চাকরি দেওয়ার প্রলোভন দেখিয়ে মেয়র মেনহাজুল প্রায় তিন বছর ধরে ধর্ষণ করে আসছেন। সর্বশেষ এই মহিলা ঘটনার বিচার চেয়ে মুখ খোলায় তাঁকে মেয়র ও তাঁর লোকজন গণধর্ষন করে এবং হত্যার চেষ্টা চালায়।

সংবাদ সম্মেলনে ‘নির্যাতিত’ নারী বলেন, “আমি গৃহিণী ও কয়েক সন্তানের জননী। পৌর মেয়র এ জেড এম মেনহাজুল হক আমাকে চাকরি দেওয়ার প্রলোভন দেখিয়ে গত কয়েক বছরে অসংখ্যবার ধর্ষণ করেছেন। গোপনে তিনি আমার অশ্লীল ছবি তুলে সেগুলো ইন্টারনেটে ছাড়ার ভয় দেখিয়ে আমাকে ধর্ষণ করেন।

নির্যাতনের শিকার গৃহবধূ জানান, সর্বশেষ গত ২৯শে জুন রাতে মেয়র এ জেড এম মেনহাজুল হক তাকে বাসায় ডেকে আনে। সেখানে পূর্ব থেকে অবস্থানরত এরশাদ, রবিসহ আরও পাঁচজন অজ্ঞাতনামা যুবক ওড়না দিয়ে আমার মুখ বেঁধে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে। এ সময় বেশ কয়েকজন পথচারী চিৎকারে শুনে এগিয়ে এলে মেয়র ও তার সঙ্গীরা পালিয়ে যায়।

পার্বতীপুর মডেল থানার ওসি মোঃ মোখলেছুর রহমান বলেন, আসামিদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে। ভিকটিমকে স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য দিনাজপুর এম আব্দুর রহিম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছিল।

 

SHARE