ঘাবড়ে গিয়ে মিথ্যা বলেছিলেন ব্যানক্রফট!

51

কেপ টাউন টেস্টের তৃতীয় দিন শেষে সংবাদ সম্মেলনে বল ট্যাম্পারিংয়ের অভিযোগে ঘাবড়ে গিয়ে মিথ্যা বলেছিলেন বলে দাবি করেছেন এ কাণ্ডের মূল হোতা ক্যামেরন ব্যানক্রফট। তিনিই মাঠের ট্যাম্পারিংয়ের চেষ্টা করে ধরা পড়েন ক্যামেরায়। বৃহস্পতিবার দেশে ফিরে পার্থে সাংবাদিকদের কাছে তিনি বলেছেন, সে দিন (সংবাদ সম্মেলনে) তিনি ঘাবড়ে গিয়েছিলেন। তাই মিথ্যা বলেছেন।

কেপ টাউন টেস্টের তৃতীয় দিন হলুদ কাপড় দিয়ে বল ঘষতে গিয়ে ক্যামেরায় ধরা পড়ে যান ব্যানক্রফট। পরে সংবাদ সম্মেলনে এ বিষয়ে প্রশ্ন করা হলে তিনি বলেছিলেন, হলুদ টেপ ব্যবহার করে বল ঘষেছিলেন। কিন্তু পরবর্তীতে তদন্তে প্রমাণিত হয় যে তিনি আসলে শিরিষ কাগজই ব্যবহার করেছিলেন, যা অবৈধ।

দেশে ফিরে এ কেলেঙ্কারির ঘটনায় দুঃখ প্রকাশ করে ২৫ বছর বয়সী এ উইকেটকিপার-ব্যাটসম্যান সাংবাদিকদের বলেছেন, ‘আমি মিথ্যা বলেছিলাম। আমি শিরিষ কাগজ নিয়ে মিথ্যা বলেছিলাম। ওই পরিস্থিতিতে আমি ঘাবড়ে গিয়েছিলাম। আমি খুবই দুঃখিত। আমি খুবই লজ্জিত।’

বল ট্যাম্পারিংয়ের ঘটনায় এরই মধ্যে শাস্তি পেয়েছেন ব্যানক্রফট। ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া তাকে ৯ মাসের জন্য নিষিদ্ধ করেছে। তবু অনুশোচনায় ভুগছেন তিনি, ‘আমি ক্রিকেট খেলতে ভালোবাসি। আমি আমার কাজের জন্য খুবই অনুতপ্ত। আমি যাদের হতাশ করেছি, সবার কাছে দুঃখ প্রকাশ করছি। বিশেষ করে শিশুদের কাছে। আমি বুঝতে পেরেছি, আমার কারণে অনেকের মাথা হেট হয়েছে। আমি আমার সমাজকে বিব্রত করেছি।’

ক্রিকেট বিশ্ব তোলপাড় করা এ ঘটনায় শাস্তি পেতে হয়েছে স্টিভেন স্মিথ ও ডেভিড ওয়ার্নারকেও। দু’জনকেই এক বছরের জন্য নিষিদ্ধ করেছে অস্ট্রেলিয়ার ক্রিকেট বোর্ড। সেই সাথে নিষেধাজ্ঞার মেয়াদ শেষ হওয়ার এক বছরের মধ্যে অধিনায়কত্বের জন্য বিবেচিত হবেন না স্মিথ। অন্য দিকে ওয়ার্নারকে কখনোই অস্ট্রেলিয়ার অধিনায়কত্বের জন্য বিবেচনা করা হবে না।

দেশরিভিউ/শিমুল

SHARE