জেএমবির নাশকতার টার্গেট চট্টগ্রাম: আটক ৩

390


।।দেশরিভিউ, ঢাকা।।
চট্টগ্রামে আবারো সক্রিয় হয়ে উঠেছে নিষিদ্ধ ঘোষিত জঙ্গি সংগঠন জামাআতুল মুজাহিদীন বাংলাদেশ (জেএমবি)। ্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটেলিয়ান (র‌্যাব-১১)
চট্টগ্রাম বন্দর এলাকা থেকে জেএমবির ৩ সক্রিয় সদস্যকে গ্রেফতার করার পর প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে তারা চট্টগ্রামকে নাশকতার টার্গেটে নিয়ে জঙ্গী কর্মকাণ্ড পরিচালনার কথা স্বীকার করেছে। জানা গেছে নোয়াখালী, সিরাজগন্জ ও রাজবাড়ী থেকে জেএমবির এই তিন সদস্য চট্টগ্রামে এসে জঙ্গী আস্তানা করেছিলো।

এর আগে শুক্রবার (১২ জুলাই) পাঠানো এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে র‌্যাব-১১ এর সিনিয়র সহকারী পরিচালক জসিম উদ্দিন চৌধুরী নিষিদ্ধ ঘোষিত জঙ্গি সংগঠন জামাআতুল মুজাহিদীন বাংলাদেশের (জেএমবি) তিন সদস্যকে আটকের বিষয়টি নিশ্চিত করেন। এ সময় তাদের কাছে থাকা ল্যাপটপসহ জিহাদি বই ও উগ্রবাদী লিফলেট উদ্ধার করা হয় বলে প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়। আটক ৩ জঙ্গীর বিরুদ্ধে সিদ্ধিরগঞ্জ ও বন্দর থানায় সন্ত্রাস বিরোধী (জঙ্গি) দু’টি পৃথক মামলা আছে।

বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, বৃহস্পতিবার রাত ১১টায় চট্টগ্রামের হালিশহর এলাকায় অভিযান চালিয়ে জেএমবির ওই তিন সদস্যকে গ্রেফতার করা হয়। গ্রেফতার জেএমবি সদস্যরা হলো নোয়াখালীর নরোত্তম এলাকার আশফাক উর রহমান অয়ন ওরফে আরিফ (২৬), সিরাজগঞ্জের রুদ্রপুর এলাকার রনি আহম্মেদ রনি (৩১) ও রাজবাড়ীর কৃষ্টপুর এলাকার রিপন মন্ডল রিপন (৩০)।  

র‌্যাব সূত্র বলছে, আশফাক উর রহমান অয়ন ওরফে আরিফ জেএমবির সামরিক শাখার আইটি বিভাগের শীর্ষ নেতা হিসেবে জঙ্গি তৎপরতা অব্যাহত রাখে। আর রনি ও রিপন দীর্ঘদিন ধরে চট্টগ্রামের ইপিজেডের দু’টি বেসরকারি কোম্পানিতে চাকরি করতো। রনি চাকরির পাশাপাশি জেএমবির সাংগঠনিক কার্যক্রম চালানোর সুবিধার্থে ছদ্মবেশে রাতে রিকশাও চালাতো।

বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে গ্রেফতার জেএমবি সদস্যরা স্বীকার করেছে, তারা দীর্ঘদিন ধরে গোপনে সংগঠিত হয়ে নিষিদ্ধ ঘোষিত জঙ্গি সংগঠন জেএমবির কর্মকাণ্ড চালিয়ে আসছে। একই সঙ্গে নাশকতামূলক কর্মকাণ্ডের  অপতৎপরতা চালিয়ে যাচ্ছে। গ্রেফতার জেএমবি সদস্যদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণের প্রক্রিয়া চলছে বলে বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়।

SHARE