ঠান্ডার দিনে মান্নার গরম হুমকি: প্রতীক বরাদ্দের পর কিছুই মানবেন না।

49

নিজের নির্বাচনী এলাকা বগুড়ার শিবগঞ্জের বিএনপি নেতাদের নিজের নেতাকর্মী দাবী করে ঢাকায় এক সংবাদ সম্মেলনে মাহমুদুর রহমান মান্না বলেছেন, প্রতীক বরাদ্দের পর আনুষ্ঠানিক প্রচারণা শুরু হলে তখন বাধা দিয়ে কেউ আটকাতে পারবে না। তিনি বলেন

“আমার লোকাল নেতারা বলছেন, মার্কা বের হলে আর কোনো কিছু মানবেন না।

নিজের নির্বাচনী এলাকা বগুড়ার শিবগঞ্জের বিএনপি নেতাদের নিয়ে ঢাকায় এক সংবাদ সম্মেলন করে মাহমুদুর রহমান মান্না বলেছেন, তার নির্বাচনী কর্মীরা বাইরে বের হলেই পুলিশ ‘গ্রেপ্তার করছে’, তবে নির্বাচনী প্রচার শুরু হলে তারা আর কোনো বাধা মানবেন না।

মঙ্গলবার জাতীয় প্রেস ক্লাবে ‘বর্তমান নির্বাচন পরিস্থিতি এবং নির্বাচনী এলাকা’ শিরোনামে তার এই সংবাদ সম্মেলনে শিবগঞ্জ উপজেলা বিএনপির সভাপতি মতিয়ার রহমান মতিন এবং বগুড়া জেলা বিএনপির আইন বিষয়ক সম্পাদক আব্দুল বাসেত উপস্থিত ছিলেন।

২০০৭ সালে সেনা নিয়ন্ত্রিত তত্ত্বাবধায়ক সরকার আমলে সংস্কারপন্থি হিসেবে চিহ্নিত হয়ে আওয়ামী লীগের পদ হারানোর পর নাগরিক ঐক্য গড়ে তোলেন মাহমুদুর রহমান মান্না।

এবার বিএনপিকে নিয়ে কামাল হোসেনের নেতৃত্বে গড়ে ওঠা জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের সদস্য সচিবের দায়িত্বে আছেন তিনি। জোটসঙ্গী হিসেবে বিএনপির প্রত্যয়ন নিয়ে ধানের শীষের প্রার্থী হতে মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন তিনি।

এর আগে কয়েক দফায় আওয়ামী লীগের হয়ে বগুড়া-২ আসনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করে পরাজিত মান্না এবার ভোটের লড়াইয়ে জয়ী হতে ভর করতে হচ্ছে তার আগের প্রতিপক্ষ বিএনপি নেতাকর্মীদের ওপর।

এবার জয়ের ব্যাপারে আশাবাদী মান্না বলেন, “সব জায়গায় হয়ত একই রকম নেই, আমার এলাকা শিবগঞ্জে মাঠে জনগণ পাবেন। বগুড়ার বহু জায়গায় পাবেন। কিন্তু কোনো কোনো জায়গা আছে কর্মীরা ঢুকলে পুলিশ ধরে ফেলছে। আমরা এখন বিকল্প পদ্ধতি করছি, যেমনি হোক যাব, মানে এটা নয় যে, এই কারণে রাগ করে নির্বাচন ছেড়ে চলে যাব। যেটা সরকার চায়।

“আমরা যদি দিনে যেতে না পারি তাহলে রাতে যাব। আমরা যদি এই রাস্তা দিয়ে না যেতে পারি তাহলে অন্য রাস্তা দিয়ে যাব। কিন্তু যাব, তার মানে লড়াইটা ছাড়ছি না।”

SHARE