ডাকসু নির্বাচন চলছে: ছাত্রলীগের নিরুঙ্কুশ জয়ের সম্ভাবনা

2808

।।দেশরিভিউ।। ২৮ বছর পর আজ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদ (ডাকসু) নির্বাচন সকাল ৮টা থেকে শুরু হয়েছে। একটানা এই ভোট চলবে বেলা ২টা পর্যন্ত। এ উপলক্ষে ক্যাম্পাসে কঠোর নিরাপত্তাবেষ্টনী গড়ে তুলেছে আইন প্রয়োগকারী সংস্থা। সংঘাত-সংঘর্ষ ও অভিযোগমুক্ত ভোট করতে প্রস্তুত ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনও। এদিকে এই নির্বাচনে ভালো অবস্থানে রয়েছে ক্ষমতাসানী আওয়ামী লীগের ছাত্রসংগঠন বাংলাদেশ ছাত্রলীগ। নির্বাচনে ছাত্রসংগঠন ও স্বতন্ত্র প্রার্থীদের সর্বমোট ১৩টি প্যানেল অংশ নিলেও ছাত্রলীগ ছাড়া অধিকাংশ প্যানেলের ভোট ব্যাংক মূলত সরকার বিরোধী শিক্ষার্থী বা ভোটাররা। যদিও মূল পদে ভোট যুদ্ধ হবে প্রার্থী বিবেচনায়। সেক্ষেত্রে সরকার বিরোধী ভোট ভিপি পদে ৪ প্রার্থী, জিএস পদে ৪ প্রার্থী কাটাকাটি করবেন।

সংশ্লিষ্টরা মনে করছেন, নির্বাচনে ভিপি পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা হবে সম্মিলিত শিক্ষার্থী সংসদ মনোনীত প্রার্থী ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় সভাপতি রেজওয়ানুল হক চৌধুরী শোভন, ছাত্রদলের মোস্তাফিজুর রহমান, কোটা সংস্কার আন্দোলনের নুরুল হক নুরু, প্রগতিশীল ছাত্রজোটের লিটন নন্দী ও স্বতন্ত্র জোটের অরণি সেমন্তি খানের মধ্যে। অর্থাৎ ভিপি পদে ছাত্রলীগের প্রার্থীর বিপরীতে যে ৪ জন শক্ত প্রার্থী রয়েছে তারা সবাই সরকার বিরোধী ভোট কাটাকাটি করবেন। ভিপি পদে বাকি ১৬ প্রার্থী এখানে ক্যাম্পাসে অপরিচিত।

নির্বাচনে জিএস পদে ১৪ জন প্রতিদ্বন্দ্বিতা করলেও মূল লড়াই হবে  ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক গোলাম রাব্বানী, স্বতন্ত্র প্রার্থী গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের শিক্ষার্থী এ আর এম আসিফুর রহমান, ছাত্রদলের আনিসুর রহমান অনিক, কোটা সংস্কার আন্দোলনের রাশেদ খান ও ছাত্র ফেডারেশনের উম্মে হাবিবা বেনজীরের মধ্যে। এখানেও ছাত্রলীগের প্রার্থী শক্ত অবস্থানে রয়েছেন। বাকি ৯ প্রার্থীই ক্যাম্পাসে অপেক্ষাকৃত অপরিচিত।

মূল লড়াই হবে যাদের মধ্যে

উল্লেখ্য ডাকসু ও হল সংসদ নির্বাচনে মোট ভোটারের সংখ্যা ৪২৯২৩ জন। মোট প্রার্থী ৮৩১ জন। এর মধ্যে ডাকসুতে ২৫ পদের বিপরীতে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবেন ২৩৭ এবং ১৮টি হল সংসদ নির্বাচনে ১৩টি করে মোট ২৩৪টি পদের বিপরীতে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবেন ৫৯৩ জন। 

ডাকসুতে প্যানেল দিয়ে ভোটে অংশ নিচ্ছে বাংলাদেশ ছাত্রলীগ, জাতীয়তাবাদী ছাত্রদল, বাম সংগঠনগুলোর জোট প্রগতিশীল ছাত্রঐক্য, কোটা আন্দোলনকারীদের সংগঠন বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদ, স্বাধিকার স্বতন্ত্র পরিষদ, স্বতন্ত্র জোট, জাসদ ছাত্রলীগ, ছাত্রলীগ-বিসিএল, ছাত্রমৈত্রী, ইসলামী শাসনতন্ত্র ছাত্র আন্দোলন, ছাত্র মুক্তিজোট, জাতীয় ছাত্রসমাজ ও বাংলাদেশ ছাত্র আন্দোলন।

 

SHARE