ডেসটিনির চেয়ারম্যানের ৩ বছরের কারাদন্ড

189

জ্ঞাত আয়বহির্ভূত সম্পদ অর্জনের অপরাধে ডেসটিনি গ্রুপের চেয়ারম্যান মোহাম্মাদ হোসেনকে তিন বছরের কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। একই সঙ্গে তাকে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরো তিন মাসের কারাদণ্ড দেয়া হয়েছে। গতকাল ঢাকার ৬ নম্বর বিশেষ জজ আদালতের বিচারক মাহবুবর রহমান এ রায় ঘোষণা করেন। এ সময় আসামি আদালতে উপস্থিত ছিলেন। দুদকের প্রসিকিউটর মাহমুদ হোসেন জাহাঙ্গীর বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

মামলার অভিযোগে বলা হয়, দুদকের প্রাথমিক অনুসন্ধানে আসামি মোহাম্মাদ হোসেনের নামে-বেনামে জ্ঞাত আয়বহির্ভূত ১১ কোটি ১১ লাখ ৭১ হাজার ৫০৮ টাকার অবৈধ সম্পদের তথ্য পাওয়া যায়। এরপর দুদক আসামিকে ২০১৬ সালের ১৫ জুন সাত কার্যদিবসের মধ্যে সম্পদেরহিসাব দাখিল করতে নোটিস প্রদান করে। আসামি তখন ডেসটিনি কোম্পানির অর্থ আত্মসাতের অভিযোগে মানি লন্ডারিং মামলায় কারাগারে ছিলেন। ওই বছর ২০ জুন তিনি কারাগারে দুদকের নোটিস পান। এরপর তিনি আইনজীবীর মাধ্যমে হিসাব দাখিলের জন্য সময় চান। দুদক হিসাব দাখিলের জন্য আরো সাত কার্যদিবস সময় দেয়। এ সময়ের মধ্যে আসামি সম্পদের হিসাব দাখিল না করায় ২০১৬ সালের ৮ সেপ্টেম্বর মামলা দায়ের করে দুদক।

মামলাটি তদন্তের পর ২০১৭ সালের ৬ জুন আদালতে চার্জশিট দাখিল করেন দুদকের সহকারী পরিচালক মো. সালাহ উদ্দিন। পরে ওই বছরের ১৫ অক্টোবর এ মামলায় চার্জ গঠন করেন আদালত। মামলাটির বিচার চলাকালে আদালত পাঁচজনের সাক্ষ্যগ্রহণ করেন।

SHARE