দেশরিভিউতে সংবাদ প্রকাশের পর ‘জ্বলে উঠলো চাপাইল ব্রিজের সড়কবাতি’

88

।।সাজিদুল ইসলাম শোভন, নড়াইল।।

গোপালগঞ্জ এবং নড়াইল জেলার সেতুবন্ধন করেছে নড়াইল জেলার কালিয়া উপজেলার চাপাইল গ্রামে মধুমতি নদীর উপর অবস্থিত চাপাইল ব্রিজ। এ ব্রিজটি গোপালগঞ্জ এবং কালিয়া উপজেলায় বেড়াতে আসা অতিথীদের সময় কাটানো আর আড্ডা দেবার স্থান হিসেবে ব্যাপক পরিচিত হয়ে উঠেছিলো। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ভিডিও কনফারেন্সে “চাপাইল ব্রিজ” নামেই প্রায় শত কোটি টাকা ব্যায়ে নির্মিত এ ব্রিজটি ২০১৬ সালেন ৩০ এপ্রিল উদ্বোধন করেছিলেন। উদ্বোধনের তিন বছর যেতে না যেতেই নিভে গিয়েছিলো ব্রিজটির সড়কবাতি। এক মাসের বেশি সময় সড়কবাতিগুলি বন্ধ থাকায় গত রবিবার দেশরিভিউ ডট কমে “মধুমতি নদীর উপর চাপাইল ব্রিজে বাতি আছে আলো নেই” শিরোনামে সংবাদ প্রকাশিত হওয়ার পর কর্তৃপক্ষের নজরে আসে বিষয়টি।তকাল বৃহস্পতিবার থেকে আবারও জ্বলতে শুরু করেছে সড়কবাতিগুলি। এতে প্রানচাঞ্চল্য ফিরে পেয়েছে ব্রিজটি।

স্থানীয় সরকার প্রকৌশল বিভাগ এলজিইডি এর তত্বাবধানে ৫৮৮ দশমিক ৬৫ মিটার দৈর্ঘ্য এবং ৯ দশমিক ৬ মিটার প্রস্থ এ সেতুটির অবস্থান কালিয়ার চাপাইল গ্রামে। দীর্ঘ ১ মাস ব্রিজের সড়কবাতি না থাকায় ঘটেছিলো ছিনতাই সহ নানা দূর্ঘটনা। দৃষ্টিনন্দন এ ব্রিজটিতে বিকেল থেকে রাত পর্যন্ত পরিবার পরিজন, বন্ধু বান্ধব এবং নিজের প্রিয় মানুষটিকে নিয়ে অনেকেই আসতেন ব্যস্ত সময়ের মাঝে কিছুটা আড্ডা আর নির্মল বাতাস উপভোগ করতে। সড়কবাতি বিকল হয়ে যাওয়ায় রাতের সেই মনোমুগ্ধকর দৃশ্য উপভোগ করা থেকে বঞ্চিত হতে হচ্ছিল আগত অতিথীদের। তবে আবারো সড়কবাতি জ্বলার কারনে সেই মনোমুগ্ধকর দৃশ্য উপভোগ করতে পারছে আগত দর্শনার্থীরা।

কলেজ ছাত্র অব্দুল্লাহ আল রুমি, নবিন শেখ, নাঈম কাজী সহ আরও কয়েকজনের সাথে কথা বলে জানা যায়, আবারও উপজেলা বাসীর কাছে খুবই স্বাচ্ছন্দের জায়গা হয়ে ওঠবে ব্রিজটি।

 

মধুমতি নদীর উপর চাপাইল ব্রিজে ‘বাতি আছে আলো নেই’

SHARE