নবজাতক কন্যা সন্তানকে জীবন্ত মাটিচাপার চেষ্টা

111
নবজাতক শিশু (ফাইল ছবি)

।।সাদিত হাসান, দেশরিভিউ।। চতুর্থবারের মতো কন্যা সন্তান জন্ম নেওয়ার ঘটনায় ক্ষুব্ধ হয়ে এক পাষন্ড পিতা নবজাতক কন্যাশিশুকে জীবন্ত মাটিচাপার চেষ্টা করেছে অভিযোগ উঠেছে।

ঢাকার ধামরাই উপজেলার পশ্চিম সূত্রাপুরে গত ১৮ আগষ্ট এ ঘটনা ঘটে।

জানা গেছে, ঢাকার ধামরাই উপজেলার পশ্চিম সূত্রাপুর গ্রামের মো. রেজ্জেক আলী বেপারীর ছেলে মো. নয়া মিয়া বেপারী দম্পতির ঘরে পরপর চারটি কন্যাসন্তান জন্মলাভ করে। গত ১৭ আগষ্ট শনিবার সকাল ৯টার দিকে সাটুরিয়া পারভীন ক্লিনিক অ্যান্ড ডায়াগনস্টিক সেন্টারে ৪র্থ বারের মতো কন্যাসন্তানের জন্ম দেন নয়া মিয়া বেপারীর স্ত্রী হাসনা বেগম।

এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, পরপর চারবার কন্যা সম্তান জন্ম দেয়ার পর পিতা নয়া মিয়া তার স্ত্রীকে তালাক দিয়ে ওই নবজাতক শিশুকে জীবন্ত মাটিচাপা দেয়ার চেষ্টা করেন। এসময় এলাকাবাসী ওই নবজাতকটিকে জীবন্ত মাটিচাপা দেয়ার হাত থেকে রক্ষা করলেও পিতা নয়া মিয়া বেপারী এই শিশুকে লালন পালন করতে অস্বীকৃতি জানায়। পরে হাসপাতালের চিকিৎসক ও আত্মীয়-স্বজনের সহায়তায় ওই নবজাতকটিকে মোটা অংকের অর্থের বিনিময়ে বিক্রি করে বলে এলাকাবাসীসূত্রে জানা গেছে।

তবে ওই নবজাতকের পিতা নয়া মিয়া বেপারী দেশরিভিউ প্রতিবেদকের কাছে সন্তান বিক্রি ও জীবন্ত মাটিচাপা দেয়ার কথা অস্বীকার করে জানান, “আমি কোটিপতি, আমি সন্তান বিক্রি করব কী কারণে। আমার স্ত্রী কিডনি ও জরায়ু ক্যান্সারে আক্রান্ত হওয়ায় তার পক্ষে এ সন্তান লালন-পালন করা সম্ভব নয়। তাই আমি আমার স্ত্রীকে বাঁচাতে সন্তানটি অন্যের হাতে তুলে দিয়েছি। তাছাড়া আমি এত কন্যাসন্তান দিয়ে কী করব?

এ ব্যাপারে পুলিশ জানিয়েছে, এলাকাবাসীর কাছ থেকে অভিযোগ পাওয়ার পর শিশুটি উদ্ধারের চেষ্টা চলছে।

SHARE