নারী থেকে রাতারাতি পুরুষ, খাদিজা এখন সাহুল সিদ্দিকী

3

সিরাজ গঞ্জের তাড়াশে নারী থেকে পুরুষে রুপান্তরিত হয়েছে খাদিজা খাতুন সেতু নামের ১৯ বছরের  এক তরুনী।

সে তাড়াশ গ্রামের দক্ষিন পাড়ার হাসমত আলীর মেয়ে।  সেতু নারী থেকে পুরুষে রুপান্তরিত হওয়ার  খবর এলাকায় ছড়িয়ে পড়লে , আজ শুক্রবার সকালে প্রচুর মানুষ ভিড় জমায় তাকে এক নজর দেখতে তার বাড়িতে । এমনকি দুরদুরান্ত থেকেও ছুটে আসছে মানুষ । এত মানুষ সামলাতে হিমশিম খাচ্ছে তার পরিবার।

মেয়ে থেকে হঠাৎ এই পুরুষে রুপান্তরিত হওয়ার অনুভূতি কেমন ? আর কেমন লাগছে পুরূষ হতে পেরে? এমন সব প্রশ্ন ছাড়াও , প্রশ্নেরই যেন শেষ নেই উৎসুক জনতার ।

সেতুর কয়েকজন সহপাঠিই প্রথমে তাকে পুরুষে রুপান্তর হওয়ার বিষয়টি অবগত করেন । সেতু স্থানীয় স্কুল কলেজ থেকে এসএসসি ও এইচএসসি পাশ করেন এবং পরে ঢাকার একটি বেসরকারী বিশ্ববিদ্যালয়ে গত বছর থেকে টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ারিং এ পড়ালেখা শুরু করেন ।

সেতুর মা জানান , তার আচরনগত পরিবর্তন ও জীবনযাপনের ধরনও বদলে গেছে । তিনি তাকে অনাবৃত করেও দেখেছে । সে সত্যিই পুরুষে রুপান্তরিত হয়ে গেছে ।

সেতু জানান, গত মার্চ মাসের ৩০ তারিখ দিবাগত রাতে ঘুম থেকে জেগে হঠাৎই তার শারীরিক পরিবর্তন দেখতে পায় । পরে তার মা বাবা ও নিকট আত্মীয়দের জানায় । এবং তাকে একজন অভিজ্ঞ ডাক্তারের কাছে নেয়া হলে , ডাক্তার তার নারী থেকে পুরুষে রুপান্তরিত হওয়া নিশ্চিত করেন । এবং ডাক্তার বলেন , এটা হরমনের কারণে হয়েছে । এরকম পরিবর্তন অস্বাভাবিক কিছু না ।

খাদিজা খাতুন সেতুর বর্তমান নাম রাখা হয়েছে , মোঃ সাহুল সিদ্দিকী । আর এ নামেই ডাকছেন এখন সবাই ।

দেশরিভিউ/ আরিফুল ইসলাম

SHARE