পাকিস্তানে আত্মঘাতী হামলায় নিহত ২০

18

পাকিস্তানে নির্বাচনী সমাবেশের র‌্যালিতে আত্মঘাতী বোমা হামলায় এক রাজনৈতিক নেতাসহ এখন পর্যন্ত ২০ জন নিহতের খবর পাওয়া গেছে। আহত হয়েছে অন্তত ৫৪ জন।

ডন জানিয়েছে, আগামী ২৫ জুলাই অনুষ্ঠিতব্য জাতীয় নির্বাচন উপলক্ষে পাকিস্তানের উত্তর-পশ্চিমাঞ্চলে পেশোয়ার শহরে মঙ্গলবার আওয়ামী ন্যাশনাল পার্টি সমাবেশের আয়োজন করে। দলের নেতা হারুন বিলাওয়ার সমাবেশে যখন উপস্থিত দুই শতাধিক সমর্থকের উদ্দেশ্যে ভাষণ দিতে ওঠেন ঠিক তখনই তার খুব কাছে বোমা বিস্ফোরিত হয়।

স্থানীয় গণমাধ্যমগুলো জানিয়েছে, বিলাওয়ার মঞ্চে ওঠার সময় চারপাশে আতশবাজি হচ্ছিল। এই সুযোগেই বোমার বিস্ফোরণ ঘটানো হয়।

হামলায় গুরুতর আহত অবস্থায় বিলাওয়ারকে হাসপাতালে নেয়া হলে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান।

ওই বিস্ফোরণে বিলাওয়ারসহ ২০ জনের মৃত্যুর খবর নিশ্চিত করেছেন পেশোয়ারের নগর পুলিশ প্রধান কাজী জামিল। দায়িত্বরত পুলিশ কর্মকর্তা শাফক্বাত মালিক জানান, প্রাথমিক তদন্ত অনুসারে মনে হচ্ছে এটি একটি আত্মঘাতী হামলা ছিল এবং বিলাওয়ারই ছিলেন হামলাকারীর টার্গেট।

এই হামলার কয়েক ঘণ্টা আগেই পাকিস্তানের সেনাবাহিনীর এক মুখপাত্র আসন্ন নির্বাচনের আগে দেশজুড়ে নিরাপত্তাজনিত ঝুঁকি বিষয়ে সতর্ক করেছিলেন।

আওয়ামী ন্যাশনাল পার্টি (এএনপি) এর আগেও বেশ কয়েকবার এ ধরনের সন্ত্রাসী হামলার শিকার হয়েছে। দলটি বরাবরই জঙ্গি সংগঠন তালেবানের বিরুদ্ধে প্রচারণায় সরব।

হারুন বিলাওয়ার আসন্ন নির্বাচনে এএনপি’র একজন প্রার্থী। খাইবার পাখতুনখাওয়া প্রদেশের একটি প্রভাবশালী রাজনৈতিক পরিবারের সদস্য।

তার বাবা বশির বিলাওয়ার ছিলেন এএনপি’র শীর্ষ নেতাদের একজন। তিনিও ২০১২ সালে এক আত্মঘাতী বোমা হামলায় নিহত হয়েছিলেন।

হামলার ঘটনায় নিন্দা ও শোক জানিয়ে পাকিস্তান তেহরিক-ই-ইনসাফ দলের প্রধান ইমরান খান সবগুলো রাজনৈতিক দল এবং নির্বাচনী প্রার্থীদের নিরাপত্তার জন্য পুলিশি সহায়তার দাবি করেছেন।

দেশরিভিউ/ এস এস