পাচঁ বছরের কারাদন্ড সালমানের

201

১৯৯৮ সালে কৃষ্ণসার প্রজাতির দুটি হরিন শিকার করা মামলায় দোষী সাব্যস্ত্য করে বলিউড সুপারস্টার সালমান খানকে প্রথমে  দুই বছরের কারাদন্ড দিলেও পরে তা সংশোধন করে পাচঁ বছরের কারাদন্ড দিয়েছে  আদালত । এবং পাশাপাশি ১০ হাজার রুপি অর্থদন্ডও দেয়া হয় তাকে।

আজ বৃহস্পতিবার যোধপুর আদালত এ রায় দেন । পরে তাকে যোধপুর সেন্ট্রাল জেলে নেওয়া হয়। সেখানেই থাকতে হবে আজ রাত । আগামিকাল শুক্রবার তার জামিন আবেদনের শুনানী হওয়ার কথা রয়েছে । রায়ের বিরুদ্ধে সালমান খান রাজস্থান হাইকোর্টে আপিল করতে পারেন।

সালমান খানের বিরুদ্ধে অভিযোগ ছিল তিনি ১৯৯৮ সালে যোধপুরের কাছে কানকানি গ্রামে কৃষ্ণসার প্রজাতির দুটি হরিন শিকার করেছিলেন । তিনিসহ অন্যান্য অভিনেতা অভিনেত্রী সেখানে একটি সিনেমার শুটিংএ গিয়েছিল। সালমান আগে থেকেই নিজেকে নির্দোষ বলে দাবি করে আসছেন এবং বলছেন যে, প্রাকৃতিক কারণেই হরিন দুটি মারা গেছে ।

এর আগে ২০০৭ সালে নিম্ন আদালত তাকে পাঁচ বছরের কারাদন্ড দিয়েছিল । আর সেই সময় তিনি এক সপ্তাহ জেলেও ছিলেন ।পরে রায়কে চ্যালেঞ্জ করে হাইকোর্টের দ্বারস্থ হলে চলতি বছরের ২৬ জুলাই তাকে বেখসুর খালাশ দেন হাইকোর্ট । রায়ে বলা হয় সালমানের লাইসেন্স করা বন্দুকের গুলি মৃত প্রানির শরীরে পাওয়া যাইনি । তাই সন্দেহাতীতভাবে অভিযোগ প্রমানিত  হয়নি। এ জন্য সালমানকে ‘’বেনিফিট অব ডাউট’’ দিয়ে মামলা থেক খালাশ দেয়া হয়। কিন্তু রায়ের বিপরীতে রাজস্থান সরকার সালমানের সাজার মেয়াদ বাড়ানোর জন্য আপিল করেছিল। সেই আবেদনের প্রেক্ষীতেই আজ নতুন এ সাজার ঘোষনা  হল।

দেশরিভিউ/ আরিফুল ইসলাম

SHARE