বুধবার, ফেব্রুয়ারি ৮, ২০২৩

পাবনার ঈশ্বরদীতে নিপাহ্ ভাইরাসে নিহত শিশুর বাড়িতে আইইডিসিআর এর প্রতিনিধিদল

পাবনার ঈশ্বরদীতে খেজুর রস পানে নিপাহ্ ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে সোয়াদ (৭) নামে এক শিশুর মৃত্যুর ঘটনায় নিহতের বাড়িতে পর্যবেক্ষণ করেছে রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষনা ইনস্টিটিউট ( আই.ই.ডি.সি.আর) এর ১২ সদস্যের একটি প্রতিনিধি দল।

সোমবার রাত ৯ টার দিকে ঢাকা আই.ই.ডি.সি.আর এর সাইন্টিফিক অফিসার ডাঃ কাইয়ূম এর নেতৃত্বে প্রতিনিধিদল নিহতের বাড়িতে পৌঁছায়।

এসময় তারা নিহত সোয়াতের পরিবারের সদস্যদের সাথে কথা বলেন। প্রতিনিধিদলের সদস্য ডাঃ রাশেদ, ডাঃ মিলি, ডাঃ সাবরিনা, ডাঃ রাজা সহ ঈশ্বরদী উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. আসমা খান এসময় উপস্থিত ছিলেন।

তবে প্রতিনিধিদল তাদের পর্যবেক্ষণের বিষয়ে সুনির্দিষ্টভাবে কিছু জানান নি। ঢাকায় ফিরে অফিসিয়াল ভাবে পর্যবেক্ষেনের বিষয়ে জানাবেন বলে স্থান ত্যাগ করেন।

প্রসঙ্গত, কয়েকদিন আগে খেজুর রস পান করে জ্বরে আক্রান্ত হয় সোয়াত নামে ঐ শিশু।শুক্রবার ২০ জানুয়ারী সকাল সাড়ে ৮টায় সোয়াতকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয় তখন তার শরীরে জ্বর ও অচেতন ছিল। পরে বিকেলে উন্নত চিকিৎসার জন্য রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের শিশু ওয়ার্ডে ভর্তি করা হয়। অবস্থার অবনতি হলে পরেরদিন শনিবার ২১ জানুয়ারী রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের শিশু আইসিইউতে রেফার করা হয়।

রবিবার নিপাহ ভাইরাসে আক্রান্তের বিষয়টি নিশ্চিত হন চিকিৎসকরা। সোমবার সকালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শিশুটি মারা যায়। নিহত সোয়াদ উপজেলার সাহাপুর ইউনিয়নের দিঘা গ্রামের সানাউল হোসেনের ছেলে ও দীঘা সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের দ্বিতীয় শ্রেণীর শিক্ষার্থী।

সর্বশেষ