প্রধানমন্ত্রীর ৫ শর্তে সংশোধন হওয়ার সুযোগ শোভন-রাব্বানীর

267

।।মেহেদী হাসান, ঢাকা।। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আওয়ামী লীগের মনোনয়ন বোর্ডের এক সভায় ছাত্রলীগের সভাপতি ও সাধারন সম্পাদকের উপর ক্ষুব্দ প্রতিক্রিয়া প্রকাশ করার পর এবার কঠোর নির্দেশনার আওতায় আসছে ঐতিহ্যবাহী এই ছাত্র সংগঠনটি।

গনভবন ও আওয়ামী লীগের ঘনিষ্ঠ সূত্রগুলো জানিয়েছে, প্রধানমন্ত্রী ছাত্রলীগের বর্তমান কমিটির সভাপতি রেজোয়ানুল হক চৌধুরী শোভন ও সাধারণ সম্পাদক গোলাম রাব্বানীকে শেষ বারের মতো সুযোগ দিচ্ছেন। তবে এজন্য মানতে হবে প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ নির্দেশনা। অন্যতায় ছাত্রলীগের বর্তমান কমিটি যেকোন সময়ে বিলুপ্ত ঘোষনা করবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

সূত্রটি দেশরিভিউকে জানিয়েছে, ছাত্রলীগ নেতারা প্রধানমন্ত্রীর সাথে দেখার করার চেষ্টা করেও ব্যর্থ হয়েছেন। তবে আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক ওবায়দুল কাদের এবং দলের তিন যুগ্ম সাধারন সম্পাদক ছাত্রলীগের দুই নেতার সাথে আলাদা আলাদা বৈঠক করেছেন। তারা প্রধানমন্ত্রীর কঠোর নির্দেশনার কথা ছাত্রলীগকে জানিয়েছেন।

গনভবন ও দলীয়সূত্র বলছে, প্রধানমন্ত্রী ছাত্রলীগকে ৫ শর্তে সংশোধন হওয়ার সুযোগ দিয়েছেন। শর্তগুলো হলো-

১. কমিটিতে থাকা অভিযুক্তদের বাদ দিতে হবে। সংগঠনের কোন্দল দ্রুত নিরসন করতে হবে ন্যূনতম সময়ের মধ্যে।

২. সারাদেশের যেখানে ছাত্রলীগের কমিটি নেই, সেখানে কমিটি দিতে হবে। কমিটি গঠনের সময় ছাত্রলীগের নেতৃবৃন্দ একক সিদ্ধান্তে কিছু করতে পারবে না। আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্দ, বিশেষ করে দলের সাধারণ সম্পাদক এবং সাংগঠনিক সম্পাদকদের সঙ্গে কমিটি নিয়ে পরামর্শ করতে হবে।

৩. ইতিমধ্যে ছাত্রলীগের বিরুদ্ধে যে অভিযোগগুলো এসেছে সে ব্যাপারে তদন্ত করতে হবে এবং দায়ীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে।

৪. ছাত্রলীগের কর্মসূচিতে অতিথিদের দাওয়াত দিয়ে তাদের যথাযথ সম্মান দিতে হবে। কোনো কর্মসূচি ঘোষণা করলে নেতৃবৃন্দকে আগে গিয়ে উপস্থিত থাকতে হবে।

৫. ছাত্রলীগের কর্মকাণ্ডে স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতা নিশ্চিত করতে হবে। সব কর্মকাণ্ড আওয়ামী লীগের মনোনীত নেতৃবৃন্দের কাছে জানাতে হবে।

—দেশরিভিউ নিউজ

SHARE