ফটিকছড়িতে বিএনপি জামায়াতের আগুনে পুড়েছে ৭ বসতবাড়ি

70

ফটিকছড়িতে বিএনপি-জামায়াতের নেতাদের  পৃথক ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডে ৭টি বসতঘর পুড়ে গেছে। উপজেলার নাজিরহাট ও ফটিকছড়ি পৌরসভায় এ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে।

জান যায়, নাজিরহাট পৌরসভার সুয়াবিল ৩ নম্বর ওয়ার্ডের ফকির বাগিচা হযরত গোলাম হোসেন শাহ বাড়িতে বৃহস্পতিবার দিবাগত রাত ২ টার দিকে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে। খবর পেয়ে ফটিকছড়ি ফায়ার সার্ভিস ঘটনাস্থলে আসলেও ততক্ষণে আগুনে বদিউল আলম বাদশা, রমজান আলি, শাহাব উদ্দীন, হাসান উল্লাহ, আমান উল্লাহ, শহিদ উল্লাহর বসতঘর পুড়ে ছাই হয়ে যায়।

ফায়ার সার্ভিস সূত্রে জানা গেছে, বিএনপি-জামায়াতের নেতাদের অগ্নিকাণ্ডে ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ প্রায় ৩০ লাখ টাকা।

ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে কাউন্সিলর মোহাম্মদ হারুন বলেন, ঘরগুলো গাছ, বাঁশযুক্ত টিনশেডের ছিল। যার কারণে ককটেল মারার সাথে সাথে ঘরগুলো দ্রুত পড়ে ছাই হয়ে যায়। বর্তমানে অগ্নিকাণ্ডে ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারগুলো মানবেতর জীবনযাপন করছে।

এদিকে ফটিকছড়ি পৌরসভার ১ নম্বর ওয়ার্ডের তেতুঁইয়ার টিলা এলাকায়ও বিএনপি-জামায়াতের অগ্নিকাণ্ডে একটি বসতঘর ভষ্মিভূত হয়েছে। বৃহষ্পতিবার দুপুরে এ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে।

জানা যায়,  স্থানীয় বিএনপির নেতারা নির্বাচনের ভোট দেওয়াকে কেন্দ্র করে তার বাড়িতে আগুন দেয়।  স্থানীয় লোকজন আগুন নিয়ন্ত্রণের চেষ্টা চালায়। পরে খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের কর্মিরা আসলেও ততক্ষণে ঘরটি পুড়ে ছাই হয়ে যায়।

পৌরসভার ১ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর সাংবাদিক রফিকুল আলম ও ২ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর আলা উদ্দিন আল রাকিব ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারে পৌরসভা হতে নগদ টাকা ও কম্বল প্রদান করেন বলে জানা গেছে।

SHARE