ফরিদপুরে আওয়ামী লীগ নেতাকে পিটিয়ে হত্যা করেছে বিএনপি নেতা কর্মীরা

162

ফরিদপুর প্রতিনিধি:

নির্বাচন নিয়ে তর্ক বিতর্কের জের ধরে ফরিদপুরে এক আওয়ামী লীগ নেতা নিহত হয়েছে। নিহতের নাম ইউসুফ আল মামুন। তিনি নর্থ চ্যানেল ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাংস্কৃতিক সম্পাদক ছিলেন। 

স্থানীয়রা জানান, মামুন ফরিদপুর-৩ (সদর) আসনের আওয়ামী লীগ প্রার্থী ইঞ্জিনিয়ার খন্দকার মোশাররফ হোসেনের কর্মী ছিলেন। এ ঘটনায় আরো একজনকে গুরুতর আহত অবস্থায় হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। মঙ্গলবার রাতে সদর উপজেলার নর্থ চ্যানেল ইউনিয়নের গোয়ালডাঙ্গি গ্রামে একটি চায়ের দোকানে এ ঘটনা ঘটে। প্রত্যক্ষদর্শী আফসার উদ্দিন বলেন, রাত সাড়ে ৮টার সময় একটি চায়ের দোকানে আওয়ামী লীগ নেতা মামুনের সঙ্গে বিএনপি সমর্থক মজিদ ও আজিজের নির্বাচন প্রসঙ্গ নিয়ে কথা কটাকাটি হয়। এক পর্যায়ে দোকানের ঝাপের লাঠি দিয়ে আঘাত করলে মামুন মাটিতে পড়ে যায়। পরে ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়ার পথে ইউসুফের মৃত্যু হয়। ফরিদপুর জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি ও জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান লোকমান হোসেন মৃধা অভিযোগ করেন, হামলাকারীরা বিএনপি সমর্থক। নর্থ চ্যানেল ইউনিয়ন বিএনপির সভাপতি জমিরউদ্দিন হাজি বলেন, নিহত মামুন ও আজিজ সমবয়সি। তারা একই সঙ্গে চলাফেরা করে। আওয়ামী লীগ ও বিএনপির নির্বাচন নিয়ে তাদের মধ্যে কথা কাটাকাটি হয়। এ থেকে দুর্ঘটনা ঘটেছে। উদ্ভূত পরিস্থিতিতে এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। ফরিদপুর কোতোয়ালি থানার ওসি এএফএম নাছিম বলেন, এলাকায় পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। তদন্তের পর ঘটনার কারণ বলা যাবে।

SHARE