বরুড়ায় বিআরটিসি এসি বাস !

6

অজিত সরকার,

দীর্ঘ প্রতিক্ষা আর নানা টালবাহানার পর অবশেষে বরুড়াবাসীর জন্য চালু হলো স্বপ্নের বিআরটিসি এসি বাস সার্ভিস। চলতি মাসের ৯ মার্চ থেকে আড্ডা-বরুড়া-ঢাকা (কমলাপুর) রুটে এ বিআরটিসি এসি বাস চালু করা হয়।

বিভিন্ন শ্রেণি পেশার মানুষের উপস্থিতিতে বরুড়া উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) এর কার্যালয়ের সম্মুখ সড়কে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে এই বাস চলাচল কার্যক্রমের আনুষ্ঠানিকভাবে শুভ উদ্বোধন করেন বরুড়ার সাবেক এমপি কুমিল্লা (দ.) জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি ও বরুড়া উপজেলা আওয়ামী লীগের আহ্বায়ক নাছিমুল আলম চৌধুরী নজরুল।

সহকারী কমিশনার (ভূমি) একেএম সাইফুল আলমের সভাপতিত্বে উদ্বোধনী সভায় বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন সড়ক, পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয়ের যুগ্ম সচিব মনীন্দ্র কিশোর মজুমদার, উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব আবদুল খালেক চৌধুরী, বিআরটিসি কুমিল্লার ডিপো ম্যানেজার মো. কামরুজ্জামান।

সভায় আরো বক্তব্য রাখেন, পৌর আওয়ামী লীগের আহ্বায়ক মো. আবদুুর রশিদ, কুমিল্লা জেলা পরিষদের সদস্য ও যুবলীগের যুগ্ম আহ্বায়ক মো. সোহেল সামাদ, বরুড়া উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক নাছির উদ্দিন মিহির। এসময় অন্যাদের মধ্যে আরো উপস্থিত ছিলেন চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক উৎপল অধিকারী শাওন, ছাত্রলীগ নেতা আবু আনসারী, মাজহারুল ইসলাম সোহেল প্রমুখ।
ডিজিটাল বাংলাদেশ বিনির্মাণে ভিশন ২০২১ কে সামনে রেখে জনগণের যাতায়াত সুবিধার কথা চিন্তা করে সারাদেশে নতুন নতুন রুটে চালু হচ্ছে বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন কর্পোরেশনের বিআরটিসি এসব এসি বাস সার্ভিস। এরই ধারাবাহিকতায় ঢাকা থেকে কুমিল্লার বরুড়া উপজেলা রুটে বিআরটিসি’র এ তিনটি এসি বাসের উদ্বোধন।

চলতি মাসের ৮ মার্চ ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে বিআরটিসির চেয়ারম্যান ফরিদ আহমেদ ভূঁইয়া তার কার্যালয় থেকে বিআরটিসি এসি বাস সার্ভিস কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন। পরে তিনি মোবাইল ফোনে কুমিল্লার বরুড়া উপজেলা কমপ্লেক্সের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে থাকা বরুড়া উপজেলার চেয়ারম্যান আলহাজ্ব আবদুল খালেক চৌধুরীর সঙ্গে কথা বলেন।
বরুড়ায় বিআরটিসি এসি বাস চালু নিয়ে ঢাকায় বসবাসরত বরুড়া সুরিচোঁ গ্রামের বাসিন্দা উৎপল অধিকারী শাওন বলেন, বরুড়ায় বিআরটিসি এসি বাস চালুর এই উদ্যোগ নি:সন্দেহে একটি শুভ বার্তা। আমাদের আত্মীয়-স্বজনরা আগে গ্রাম থেকে ঢাকা আসতে গাড়ির নানা সমস্যা পোহাতে হতো। এখন আর এ সমস্যাটা থাকবেনা, আমরাও কিছুটা টেনশান মুক্ত হবো।
বরুড়া পৌরসভায় বসবাসরত নাছির উদ্দিন মিহির বলেন, ঢাকা থেকে সন্ধ্যার পর বরুড়ার উদ্দেশ্যে রওনা দিলে অনেকসময় রাত হয়ে যায়। পদুয়ার বাজার এসে বরুড়ায় আসার গাড়ি পাওয়া যায়না। অনেক সময় সিএনজি পাওয়া গেলেও ভাড়া নেয় দ্বিগুণ। এই বিআরটিসি এসি বাস চালুর ফলে এখন থেকে আর এ সমস্যা থাকবেনা।
ঢাকায় বসবাসরত বরুড়া হরিপুর গ্রামের বাসিন্দা মোঃ শহিদুল্লাহ বলেন, আড্ডা-বরুড়া-ঢাকা রুটে বিআরটিসি বাস ঠিকমতো চলাচল করলে মানুষের দুর্ভোগ অনেক কমে যাবে। এ বাস চালুর মধ্য দিয়ে বরুড়ার উন্নয়নের দুয়ার খুললো। বরুড়ায় এ উন্নয়নের ধারা যেন অব্যাহত থাকে।

SHARE