দেশপ্রেমের জন্য মাশরাফির ৮ কোটি টাকা বিসর্জন

188

।।দেশরিভিউ সংবাদ।। বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের কিংবদন্তি ক্রিকেটার মাশরাফি বিন মর্তুজা তার ক্যারিয়ারে পুরো সময় বীর যোদ্ধার মতো খেলে গিয়েছেন। এই ক্রিকেটার দেশের জন্য অনেক কিছুই করেছেন। টাকার কাছে মাথা নত করেননি তিনি কখনোই। সারাজীবন খেলেছেন নিঃস্বার্থ দেশের জন্য। কিন্তু বিগত এক বছর ধরে মাশরাফিকে নিয়ে হচ্ছে নানা আলোচনা-সমালোচনা।

বাংলাদেশ ক্রিকেটকে পাল্টে দেওয়া এই বীর যোদ্ধাকে অবসর নিতে চাপ দিয়েছে বিভিন্ন মহল। ধারণা করা হচ্ছিল গত ওয়ানডে বিশ্বকাপের পর আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে অবসর নেবেন অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজা। কিন্তু জেদের বসে সেটি আর করেননি তিনি।

ওই সময়ে বিসিবির সভাপতি নাজমুল হাসান পাপনকে জানিয়েছিলেন বিপিএল খেলার পর সিদ্ধান্ত নেবেন তিনি। ক্রিকেট ভিত্তিক ওয়েবসাইট “ক্রিকবাজকে” দেয়া এক সাক্ষাৎকারে এমনটাই বলেছেন মাশরাফি বিন মর্তুজা।

পাপন ভাই আমাকে বারবার ফোন করে সিদ্ধান্ত নিতে বলেন। আমি তখন তাকে (পাপন) বলেছি বিপিএল পর্যন্ত খেলতে চাই। আমার স্পষ্ট মনে আছে তিনি সবাইকে রুম থেকে বেরিয়ে যেতে বলেছিলেন কারণ আমার সাথে একান্তে কথা বলতে চেয়েছেন। এ ক্ষেত্রে তিনি আমাকে বেশ সম্মান দিয়েছেন।’

তবে এর মধ্যেও অনেক চাপা কষ্ট রয়েছে মাশরাফি বিন মোর্তজার। ১৮ বছর ধরে বাংলাদেশ ক্রিকেটের সাথে ছিলেন মাশরাফি। কেজিতে শেষ মুহূর্তে মাশরাফিকে অবসর নেওয়ার জন্য অনেকেই চাপ দিয়েছিলেন। অনেকেই তো বলে দিয়েছেন টাকার জন্য খেলেন মাশরাফি। কিন্তু কখনোই টাকার লোভে পড়েননি মাশরাফি।

বারবার অনেক জায়গা থেকে অনেক টাকার অফার আসলো সেগুলো প্রত্যাখ্যান করেছেন মাশরাফি বিন মুর্তজা। সাক্ষাৎকারে মাশরাফি আরো বলেন, “আমার বেতন নিয়ে কথা বলেছে অনেকেই, জিজ্ঞাসা করে কেন বোর্ড কোন বিনিময় ছাড়া কাউকে কিছু দিয়ে দিবে? আমি কি ১৮ বছর ধরে টাকার জন্য ক্রিকেট খেলেছি? যদি টাকার কথা চিন্তা করতাম আমার অনেক সুযোগ ছিল। টাকার জন্য ক্রিকেট খেলিনি আমি।

সবচেয়ে খারাপ ব্যাপার হল তারা এমনভাবে গুজব ছড়িয়েছে যেন বিশ্বকাপে বাংলাদেশ সাড়ে ৯ জন নিয়ে খেলেছে। আপনি কি মনে করেন আমি এটার প্রাপ্য? হতে পারে বোর্ড আমাকে আরও ভালো বিদায় দিতে চেয়েছে। তবে আপনাকে আমার দিকটাও দেখতে হবে। আমার শ্রীলঙ্কা যাওয়া নিয়েও কথা হয়েছে, চোটে না পড়লে আমি শ্রীলঙ্কা সফরেও যেতাম।’

আমি শুধু জানি আমি আমার জীবনটা ক্রিকেটের জন্যই সঁপে দিয়েছি এমনকি নানা কষ্টে হৃদয়ে রক্তক্ষরণ হয়েছে বারবার তবুও ক্রিকেটই আমার সব। টাকাই যদি মাণদন্ড হত চোটে পড়ে ক্যারিয়ার শঙ্কায় পড়েছে অনেকবার তখনই কিন্তু ভিন্ন কিছু করতে পারতাম।

৮ কোটি টাকার প্রস্তাব পেয়েও আইসিএল খেলতে যাইনি। আমি আমার জীবন দিয়ে ক্রিকেট খেলেছি। হয়তো বড় কোন খেলোয়াড় হতে পারিনি কিন্তু নূন্যতম সম্মান আশা করতে পারি।’

 

SHARE