বিএনপি’র সেই নেত্রী মেয়র নাছিরের বোন! (ভিডিও)

936


।।দেশরিভিউ চট্টগ্রাম।।
আওয়ামী লীগের ব্যানারে আয়োজিত অনুষ্ঠানে ‘অতিথি’ হিসাবে বিএনপি নেত্রী মনোয়ারা বেগম মনির হাতে মাইক্রোফোন তুলে দিয়ে সমালোচনার মুখে পড়া চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আ. জ. ম. নাছির উদ্দিনের নতুন একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ভাইরাল হয়েছে।

ভিডিওতে দেখা যায়, নগরীর বিভিন্ন থানায় নূন্যতম ৬টি নাশকতার মামলার আসামী সেই বিএনপি নেত্রীকে বোনের সাথে তুলনা করে বক্তব্য দিচ্ছেন মেয়র আ. জ. ম. নাছির উদ্দিন। এছাড়াও শুক্রবারের ঐ অনুষ্ঠানের সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বিএনপি নেত্রী মনিকে ‘বিশেষ অতিথি’ উল্লেখ করায় আওয়ামী লীগের ভেতরে চলছে চরম অসেন্তোষ।

অন্যদিকে আওয়ামী লীগের ব্যানারে আয়োজিত অনু্ষ্ঠানে অংশগ্রহন করায় মনোয়ারা বেগম মণিকে চট্টগ্রাম নগর মহিলা দলের সভাপতির পদ থেকে শনিবার রাতে বহিস্কার করে কেন্দ্রীয় মহিলা দল। তবে আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে বিএনপি নেত্রীকে অতিথি করার ঘটনায় এখনো পর্যন্ত দলটির হাইকমান্ড নিরব ভূমিকা পালন করছেন।

নতুন ভাইরাল হওয়া ভিডিওতে দেখা যায়, শুক্রবার (০৪ অক্টোবর) সকালে নগরীর লালখান বাজার ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের ব্যানারে দুর্গাপূজা উপলক্ষে সনাতন ধর্মাবলম্বীদের বস্ত্র বিতরণ অনুষ্ঠানে নিজের বক্তব্য দেওয়ার সময় চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আ. জ. ম. নাছির উদ্দিন মহিলা দলের সভানেত্রী মনোয়ারা বেগম মনি’কে নিজের ‘বোন তূল্য’ সম্বোধন করে বলেন “অনু্ষ্ঠানে উপস্থিত আছেন পরপর তিনবার নির্বাচিত জনপ্রিয় সংরক্ষিত কাউন্সিলর আমার বোন তুল্য মিসেস মনোয়ারা বেগম মনি”

ভিডিওতে আরো দেখা যায়, সনাতন ধর্মাবলম্বীদের বস্ত্র বিতরণের অনুষ্ঠান হলেও রাস্তায় নেমে সনাতন ধর্মের অনেক নারী আয়োজকদের বিপক্ষে ক্ষোভ প্রদর্শন করছেন। তাদের অভিযোগ, অনু্ষ্ঠানে বসিয়ে রেখেও শেষপর্যন্ত তাদের বস্ত্র দেওয়া হয়নি। একজন নারী এসময় অভিযোগ করে বলেন, আমাদের কাপড় দেওয়ার জন্য ডাকলেও সে কাপড় মুসলিম নারীদের বিতরন করা হয়েছে। আমাদের দেওয়া হয়নি।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে নগর আওয়ামী লীগের সম্পাদকমণ্ডলির এক সদস্য গণমাধ্যমকে বলেন, ‘ফ্রিডম পার্টির নেতারা এসে যুবলীগ করছে। বিএনপি নেত্রীর দেহরক্ষীকেও নেতারাই আশ্রয় দিচ্ছে। এটাও একই ঘটনা। মেয়র আমাদের দলের নগর শাখার সাধারণ সম্পাদক। উনার উপস্থিতিতে বিএনপির একজন নেত্রী দলের অনুষ্ঠানে কিভাবে বক্তব্য রাখেন, যদি উনার সম্মতি না থাকে। যে নেত্রী পুলিশের ওপর হামলা, গাড়িতে আগুন দেওয়াসহ নাশকতায় অভিযুক্ত, তাকে আওয়ামী লীগের প্রোগ্রামে আনা মানে তাকে নিরাপদ আশ্রয় দেওয়া।’

 

ভিডিওতে দেখুন:

SHARE