বিএনপি-আইএসআই: বিপুল অর্থ দুবাইতে আটক

217

দেশরিভিউ: দুবাই পুলিশের দুর্ধর্ষ এক অভিযানে ব্যার্থ হয়ে গিয়েছে বাংলাদেশের আগামি নির্বাচন নিয়ে ভয়ানক এক চক্রান্ত। ধরা পরেছে বিপ্লব পরিমান অর্থ। দুবাই ভিত্তিক সংবাদ মাধ্যম গালফ দুবাই এই সংবাদ প্রকাশ করেছে। পত্রিকাটি জানায় রাশ আল খাইমায় গত ২৩ ডিসেম্বর এই অভিযান চালায় দুবাই পুলিশ। 

জানা গেছে গত কিছুদিন আগে ফাঁস হওয়া আইএসআই এর সাথে বিএনপি নেতার ফোনালাপের সূত্র ধরে কিছু ব্যাক্তি এবং প্রতিষ্ঠানের উপর বিশেষ নজরদারির জন্য সেখানকার সরকারকে বিশেষ অনুরোধ জানায় মন্ত্রণালয়। এরপর থেকেই দুবাই পুলিশ পাকিস্তান, দুবাই এবং লন্ডনের মধ্যে যোগাযোগ আছে এমন বেশ কিছু ব্যাক্তির সন্ধান পায়। শুরু হয় গোপন নজরদারি। এর মধ্যেই দুবাই পুলিশ জানতে পারে বাংলাদেশের একজন বিতর্কিত রাজনীতিবিদ যিনি বর্তমানে লন্ডন অবস্থান করছেন তার সাথে যোগাযোগ করেছেন জেবেল আলী এলাকার ফাজাল কাশিম নামের এক পাকিস্তানী। তাদের আলাপের সূত্র ধরে দুবাই পুলিশ নিশ্চিত হয় ২৩ ডিসেম্বর গভীর রাতে মতিউর রহমান নামে দুবাই বিএনপির এক নেতার কাছে হস্তান্তর হবে ৯৭৬ কোটি টাকা। পুলিশ আরো নিশ্চিত হয় সেই টাকা আগামী নির্বাচন উপলক্ষে বিএনপিকে দিচ্ছে আইএসাই। টাকা কেবল নির্বাচন নয় নির্বাচন পরবর্তী পারিপার্শ্বিক পরিস্থিতি মোকাবেলায় ব্যাবহারের জন্য দেয়া হবে। তাৎক্ষনিক প্রশাসনিক সিদ্ধান্তে একশনে যায় পুলিশ। তারা রাশ আল খাইমায় অভিযান শুরু করে। এসময় ৯৭৬ কোটি টাকাসহ ফাজাল গ্রেফতার হয়। পরিস্থিতি টের পেয়ে পালিয়ে যান বিএনপি নেতা মতিউর। পুলিশ নিশ্চিত হয়েছে পালানোর সময় মতিউর লন্ডনে কল করে কাউকে জানান, স্যার উই আর ইন রিস্ক। এরপর থেকে তাকে আর খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না।

এই খবরে নড়েচড়ে বসেছে দুবাই প্রশাসন, বিভিন্ন আন্তর্জাতিক গোয়েন্দা সংস্থা। এদিকে পাকিস্তান সরকার এই খবর প্রকাশ না করা এবং ফাজাল এর মুক্তির জন্য চাপ দিচ্ছে দুবাইকে বলে নিশ্চিত করেছে সংবাদ মাধ্যমটি।

SHARE