বিসিবির নিরাপত্তা ডিউটিতে ছিল একঝাঁক বিএনপি-জামায়াতের ক্যাডার

731


।।আরিফ হোসেন, চট্টগ্রাম।।

গত ৬ সেপ্টেম্বর চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে বাংলাদেশ আফগানিস্তান টেষ্ট ম্যাচ চলাকালে গ্যালারি থেকে মাঠে নেমে এলেন এক দর্শক। সাকিব আল হাসানকে স্যালুট দিয়ে নাটকীয় ভাবে বাড়িয়ে দিলেন হাতে থাকা ফুল। এরপর জড়িয়ে ধরলেন সাকিব আল হাসানকে।

আন্তর্জাতিক ক্রিকেট ম্যাচ চলাকালে এমন দৃশ্যপট সামনে আসার পর চট্টগ্রামের জহুর আহম্মদ চৌধুরী স্টেডিয়ামের নিরাপত্তার ব্যবস্থা নিয়ে প্রশ্ন উঠেছিলো। এ নিয়ে সমালোচনার মুখে পড়েছিলো স্থানীয় আইনশৃঙখলা রক্ষাকারী বাহিনীও।

কিন্তু দেশরিভিউ’র অনুসন্ধানে উঠে এসেছে ভিন্নতথ্য।
মাঠের ফটকে দায়িত্বরত পুলিশ সদস্যরা ছাড়াও গ্যালারি ও মাঠের বিভিন্ন স্থানে আন্তর্জাতিক ম্যাচগুলোতে নিয়োজিত থাকে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) নিরাপত্তা কমিটির নিয়োজিত আলাদা নিরাপত্তাকর্মী। বিসিবি কর্তৃক নিয়োজিত এসব নিরাপত্তাকর্মীদের স্থানীয় বিসিবি কর্মকর্তারা যাচাই বাছাই করে মাঠে নিরাপত্তার কাজে দৈনিক বেতনের আওতায় নিয়োগ প্রদান করেন।

দেশরিভিউ’র অনুসন্ধানে জানা গেছে, জহুর চৌধুরী স্টেডিয়ামে ঐ টেষ্ট ম্যাচ চলাকালে নিরাপত্তার কাজে নিয়োজিত সিকিউরিটি সুপারভাইজার ছিলেন এক ছাত্রদল ক্যাডার। সাদ্দাম হোসেন নামে ঐ ছাত্রদল ক্যাডারের অধীনে পুরা টেষ্ট ম্যাচে কাজ করেছে নূন্যতম অর্ধশতাধিক তরুন যুবক। যাদের অধিকাংশই চট্টগ্রামের বিএনপি জামায়াতের ছাত্রসংগঠন ছাত্রদল-শিবিরের রাজনীতির সাথে জড়িত।

নিরাপত্তা কমিটির সিকিউরিটি সুপারভাইজার সাদ্দাম হোসেনের আইডি কার্ড

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক সিজেকেএস কর্মকর্তা দেশরিভিউকে এ বিষয়ে বলেন, আইন-শৃঙখলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যরা মূলত মাঠের ফটক ছাড়াও ভেন্যুর চতুর্পাশে নিরাপত্তায় নিয়োজিত থাকে। এক্ষেত্রে প্রত্যেকের আলাদা আলাদা পজিশন নির্ধারন করা থাকে। কিন্তু বিসিবি কর্তৃক নিয়োজিত এসব নিরাপত্তাকর্মীদের বিচরণ থাকে দর্শক গ্যালারি থেকে শুরু মাঠের সর্বস্তরে। যাচাই বাছাই ছাড়া এসকল নিরাপত্তাকর্মীদের আন্তর্জাতিক ভেন্যুতে নিয়োগ দেয়া সম্পূর্ণ ঝুঁকিপূর্ণ।

নগর বিএনপির সভাপতি ডা. শাহাদাত হোসেনের সাথে সিকিউরিটি সুপারভাইজার হোসাইন

এদিকে জহুর আহম্মদ চৌধুরী স্টেডিয়ামের নিরাপত্তায় নিয়োজিত সিকিউরিটি সুপারভাইজার সাদ্দাম হোসেইনের ফেসবুকে গিয়ে দেখা যায়, বিএনপির রাজনীতির সক্রিয় সাদ্দাম সব নগর বিএনপি শীর্ষ নেতাদের সাথে মিছিল মিটিংয়ে সামনের সারিতে অবস্থান করেন। এছাড়াও চরম ধর্মীয় বিদ্বেষ ও সরকারের গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিদের নিয়ে কূরুচিপূর্ণ স্ট্যাটাস তার ফেসবুকে দেখা যায়।

সূত্রমতে, নগর আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক ও সিটি মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দিন দীর্ঘদিন বিসিবির সহ সভাপতির দায়িত্ব পালন করছেন। সেই সুবাধে চট্টগ্রামের আন্তর্জাতিক ক্রিকেট ম্যাচগুলো নিরাপত্তায় কমিটির সমন্বয়কের দায়িত্ব পালন করেন তার রাজনৈতিক অনুসারী জনৈক আব্দুর রশিদ লোকমান। নিজেকে সেচ্ছাসেবকলীগ নেতা পরিচয়দানকারী আব্দুর রশিদ লোকমানের অধীনেই নিরাপত্তা কমিটিতে সিকিউরিটি সুপারভাইজার হিসাবে কাজ করেছেন সাদ্দাম হোসেন।

এ বিষয়ে জানতে আব্দুর রশিদ লোকমানের মোবাইলে বেশ কয়েকবার ফোন দিলেও সংযোগ পাওয়া যায়নি।

বিএনপি ক্যাডার সাদ্দাম হোসেনের ফেসবুক থেকে সংগ্রহিত
SHARE