বেপরোয়া মদ ব্যবসায়ী অনুপ বিশ্বাস! হামলার শিকার এলাকাবাসী (ভিডিও)

261

।।দেশরিভিউ চট্টগ্রাম।। বাংলা চোলাই মদের মহাল উচ্ছেদের আন্দোলন করায় চট্টগ্রামের ফিশারিঘাটে হামলার শিকার হয়েছেন তিন এলাকাবাসী। আহত তিনজন হলেন বিজয় আইচ, জয় দাশ, মাধব দাশ।

চট্টগ্রামের আলোচিত বাংলা চোলাই মদ ব্যবসায়ী ‘অনুপ বিশ্বাসের’ ক্যাডাররা তাদের উপর হামলা করেছে বলে এলাকাবাসী অভিযোগ করেছে।

মঙ্গলবার রাত ৯টায় নগরীর পাথরঘাটা ওয়ার্ডের ইকবাল রোডের ফিশারিঘাটে প্রথম দফা এবং দ্বিতীয় দফায় রাত ১টায় সমবায় মার্কেটের সামনে এ হামলার ঘটনা ঘটে।

অভিযোগ আছে, একটি কক্ষে মদ বিক্রির লাইসেন্স নিলেও রাজনৈতিক ও প্রশাসনিক ছত্রছায়ায় চট্টগ্রামের ফিশারিঘাট থেকে পুরো পাথরঘাটা এলাকাজুড়ে সড়কের আশপাশে গজিয়ে ওঠা শত শত ঝুপড়িতে বাংলা চোলাই মদ বিক্রি করে আসছেন ‘অনুপ বিশ্বাস’। অনুপ বিশ্বাসের দীর্ঘদিনের এই মদ ব্যবসা ধীরে ধীরে সমগ্র চট্টগ্রামে ছড়িয়ে পড়েছে।

বিশাল এলাকাজুড়ে মদ ব্যবসা বন্ধের দাবীতে এলাকাবাসীর মানববন্ধন

সম্প্রতি এলাকাবাসী বিশাল এই মদের সাম্রাজ্য বন্ধের দাবীতে সামাজিক আন্দোলনে নামে। মাদক বিরোধী আন্দোলন চট্টগ্রাম নামের একটি সংগঠনও তারা গঠন করে কর্মসূচীও পালন করে। আন্দোলনের মুখে সপ্তাহ দুয়েক আগে অনুপ বিশ্বাসের মদের মহাল থেকে ৩০ হাজার লিটার বাংলা মদ সহ ৪৫ জনকে আটক করে র্যাপিড আ্যকশন ব্যাটেলিয়ান র্যাব।

মাদক বিরোধী আন্দোলন, চট্টগ্রামের সমন্বয়ক এনামুল হক এনাম দেশরিভিউকে জানান, অনুপের মদের মহাল উচ্ছেদের জন্য আন্দোলন করায় আমাদের বারবার হুমকি দেয়া হয়েছিলো। সর্বশেষ মঙ্গলবার রাতে অনুপ বিশ্বাসের ক্যাডার প্রভাশ, জনি, বিভু দাশ, মুন্না দাশ, গিটু দাশ, সমীর দাশের নেতৃত্বে আমাদের উপর দুই দফা হামলা চালানো হয়েছে। এতে আমাদের তিনজন আহত হয়েছেন।

আরো পড়ুন: মেয়রের পশ্রয়ে অনুপ বিশ্বাসের মদের ব্যবসা

আলাপকালে এনাম অভিযোগ করে বলেন, আমাদের উপর হামলার সময় ঘটনাস্থলে পুলিশ উপস্থিত থাকলেও কাউকে আটক করেনি। এ ঘটনায় মামলা করার চেষ্টা করেও পুলিশের সহায়তা না পাওয়ার অভিযোগ করেন
এনামুল হক এনাম।

জানা গেছে, চট্টগ্রাম জেলা ক্রীড়া সংস্থা (সিজেকেএস) নির্বাহী সদস্য অনুপ বিশ্বাস একসময় জাতীয় পার্টির রাজনীতির সাথে যুক্ত ছিলেন। বর্তমানে আওয়ামী লীগের বিভিন্ন সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠনের অনুষ্ঠানে অনুপ বিশ্বাসকে উপস্থিত থাকতে দেখা যায়। এছাড়াও অনুপ বিশ্বাস সিজেকেএসের নির্বাহী সদস্য হওয়ায় জেলা ক্রীড়া সংস্থা(সিজেকেএস) সাধারন সম্পাদক ও মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দিনের সাথে বিশেষ সখ্যতা ও দহরম মহরম রয়েছে বলে বিভিন্ন গনমাধ্যমে উঠে আসে।

 

 

 

SHARE