ভারতে জামায়াত নিষিদ্ধ। নেতাকর্মীদের সম্পত্তি ক্রোক অভিযান শুরু

819

।।দেশরিভিউ।। পাকিস্তানের সাথে সরাসরি যোগাযোগ রক্ষা করে ভারতের মাটিতে রাজনীতি করা, জঙ্গীবাদে অর্থায়ন ও মদদ দেয়ার সরাসরি অভিযোগ সহ নানা বিতর্কিত দেশদ্রোহী কর্মকান্ডে অভিযুক্ত রাজনৈতিক সংগঠন জামায়াতে ইসলামী হিন্দ’কে নিষিদ্ধ ঘোষনা করার পর দলটির নেতাকর্মীদের সকল সম্পত্তি ক্রোক করা শুরু করেছে ভারতের রাজ্য সরকার কর্তৃপক্ষ। জানা গেছে ভারতের কেন্দ্রীয় সরকারের সিদ্ধান্ত অনুসারে দলের কর্মী ও নেতাদের সম্পত্তি জব্দ করা শুরু করেছে জম্মু ও কাশ্মীর রাজ্য কর্তৃপক্ষ। 

জানা গেছে, এরই মধ্যে দলটির ২০০ জনেরও বেশি কর্মীকে গ্রেফতার করা হয়েছে। কাশ্মীর উপত্যকার বিভিন্ন স্থানে ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকা তাদের বাড়িঘরও সিল করে রাখার সংবাদ আন্তর্জাতিক গনমাধ্যমে এসেছে।

জানা গেছে, বৃহস্পতিবার ভারতের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জামায়াতকে পাঁচ বছরের জন্য বেআইনি সংগঠন ঘোষণা করে। পুলওয়ামায় আত্মঘাতি হামলায় ৪০ জন জওয়ান নিহত হওয়ার পর ভারতীয় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সভাপতিত্বে নিরাপত্তা সম্পর্কিত উচ্চ পর্যায়ের বৈঠক শেষে বেআইনি কার্যকলাপ (প্রতিরোধ) আইনের অধীনে এই সিদ্ধান্তটি নেয়া হয়। এরপর জামায়াতের সঙ্গে যুক্ত সকল প্রতিষ্ঠান এবং সম্পত্তি সিল করার আদেশ জারি করেন স্থানীয় ম্যাজিস্ট্রেট। ভারতের অভিযোগ, জামায়াতের সঙ্গে সন্ত্রাসবাদী গোষ্ঠীর ঘনিষ্ঠ যোগাযোগ ছিল এবং জম্মু ও কাশ্মীরে বিচ্ছিন্নতাবাদী আন্দোলন বৃদ্ধির পিছনে এঁদের হাত রয়েছে।

SHARE