ভুরুঙ্গামারীতে বয়স্ক ভাতার টাকা ছিনতাই

86

এজি লাভলু, কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি: কুড়িগ্রাম জেলার ভূরুঙ্গামারী উপজেলায় বিধবা ভাতার টাকা ছিনতাইয়ের ৬ মাস যেতে না যেতেই ফের মমিরন বেগম নামের একজন বৃদ্ধার বয়স্ক ভাতার টাকা ছিনতাইয়ের ঘটনা হয়েছে।

গতকাল বুধবার (১৫ জানুয়ারি) দুপুরে তিন মাসের বয়স্ক ভাতার ১৫০০ শত টাকা তুলতে সমাজ সেবা অফিসে যান মমিরন বেগম। টাকা তোলার পর উপজেলা পরিষদ চত্বরে আসলে এক যুবক কৌশলে তাঁর টাকাগুলো হাতিয়ে নিয়ে পালিয়ে যায়।

বৃদ্ধা মমিরন বেগম বলেন, অপরিচিত এক যুবক টাকা গুনে দেয়ার কথা বলে তার কাছ থেকে টাকা নেয়। পরে তা ফেরত না দিয়ে পালিয়ে যায়।

মমিরন বেগম ভূরুঙ্গামারী উপজেলার আন্ধারীঝাড় ইউনিয়নের চর বারুইটারী গ্রামের মৃত ওমর আলীর স্ত্রী। জাতীয় পরিচয় পত্র অনুযায়ী তার জন্ম ১৯৩৭ সালে। বয়সের ভারে ঠিকমত কথা বলতে পারেন না তিনি। স্বামী মারা যাবার পর থেকে তিনি ছেলের সাথে আন্ধারীঝাড় ইউনিয়নের চর ধাউরারকুঠি গ্রামে থাকেন।

টাকা খুইয়ে তিনি সমাজ সেবা অফিসের বারান্দার খুঁটিতে বসে বার বার বিলাপ করে বলছেন ‘বাবারা তোমরা আমার টেকাগুলান ফিরাইয়া দেও। এই টেহায় আমার সংসার চলে। তিন চাইর মাসের খাওয়া খরচ চলে। তোমরা আমার টেকাগুলা ফিরাইয়া দেও। আকুতি ভরা কোটরাগত দু’চোখ বেয়ে গড়িয়ে পড়েছে কয়েক ফোঁটা চোখের জল।

অসহায় বৃদ্ধা মমিরন বেগমের পাশে নেই কেউ। সাধারণ মানুষদের ধারণা নেশাগ্রস্ত যুবকেরাই এসব ঘটনা ঘটাচ্ছে। এর আগেও উপজেলা পরিষদ চত্বর থেকে গত বছরের মে মাসে সোনাভান বেওয়া নামের এক বৃদ্ধার বিধবা ভাতার টাকা ছিনতাইয়ের ঘটনা ঘটে। এধরণে ঘটনার পুনরাবৃত্তি রোধে প্রশাসনের পক্ষ থেকে জোরালো পদক্ষেপ গ্রহণ করার দাবী এলাকার সচেতন মহলের।

ভূরুঙ্গামারী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ইমতিয়াজ কবির জানান, এ ব্যাপারে কোনও অভিযোগ পাইনি, অভিযোগ পেলে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এ,এইচ, এম মাগফুরুল হাসান আব্বাসী জানান, এরকম ঘটনার কথা কেউ আমাকে জানায়নি, তবে ঘটনা যদি সত্যি হয় তাহলে খুবই দু:খজনক। এরকম ঘটনার পুনরাবৃত্তি যাতে না ঘটে তার ব্যবস্থা গ্রহণ করার আশ্বাস দেন তিনি এবং টাকা খওয়ানো বৃদ্ধাকে ব্যক্তিগত ভাবে সহযোগিতা করার আশ্বাসও দেন তিনি।

SHARE