মজা করে ৩৩৩ নম্বরে ত্রাণ চাইলেন মেয়ে, ক্ষমা চেয়েছেন বাবা

218

।।দেশরিভিউ নিউজডেস্ক।।

তিন দিন ধরে ঘরে খাবার নেই। সহযোগিতায় কেউ এগিয়ে আসেননি। এই সুরে স্বাস্থ্য বাতায়ন হেল্প নম্বর ৩৩৩-এ ফোন দিয়ে সহযোগিতা চান এক নারী। জরুরি ভিত্তিতে ত্রাণও পাঠানো হয়েছে। কিন্তু ত্রাণ দিতে গিয়ে দেখা যায়, ওই নারীর পরিবার ত্রাণ পাওয়ার উপযোগী নয়। বরং ত্রাণ দেয়।

আজ শুক্রবার (০৩ এপ্রিল) দুপুরে চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ডের উপজেলার ভাটিয়ারী ইউনিয়নে এই ঘটনাঘটে।

এ ব্যাপারে ভাটিয়ারী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান নাজিম উদ্দিন বলেন, ওই নারীর বাবা বিভিন্ন সময় অসচ্ছল ব্যক্তিদের দান করে থাকেন। তিনি চাইলে এই মুহূর্তে খেটেখাওয়া মানুষকে কয়েক বস্তা চাল দিতে পারেন। তাঁর মেয়েরাও আর্থিকভাবে অসচ্ছল নন। শুধু মজা করার জন্যই ফোন করে ত্রাণ চেয়েছেন ওই নারী। সন্ধ্যায় ওই নারীর বাবা ক্ষমা চেয়েছেন।

চেয়ারম্যান নাজিম উদ্দিন আরও বলেন, এখন মানুষের মানসিকতা এমন হয়ে গেছে, সরকার ত্রাণ দিচ্ছে, তাকেও পেতে হবে। ত্রাণগুলো দিচ্ছে মূলত নিম্ন আয়ের মানুষদের জন্য, যাদের কাজ বন্ধ হয়ে গেছে। বিষয়টি কিছু মানুষ বুঝছেন না।

সীতাকুণ্ড উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মিল্টন রায় বলেন, আজ সকালে ওই নারী ৩৩৩-তে ফোন দেন। ফোন পেয়ে ওই নারীকে জরুরি ভিত্তিতে ত্রাণ দিতে ৩৩৩ থেকে তাঁকে নির্দেশনা দেওয়া হয়। তিনি ত্রাণ নিয়ে ভাটিয়ারী যান। চেয়ারম্যানকে ওই পরিবারের কথা জানানোর পর তিনি জানতে পারেন, পরিবারটি অসচ্ছল নয়।

অথচ দুর্যোগমুহূর্তে ওই নারী মজা করেছেন। সচ্ছল ব্যক্তিদের এভাবে মজা না করতে এবং অসচ্ছল পরিবারের নির্ধারিত ত্রাণ গ্রহণ না করতে অনুরোধ জানান তিনি।

SHARE