মাথা ব্যথার ঘরোয়া সমাধান দিলেন ডা. তাসনিম জারা (ভিডিও)

101


দেশরিভিউ:
অনেক সময়েই লম্বা ছুটির দিন কাটিয়ে আমরা আবিষ্কার করি যে আমাদের মাথা ব্যথা করছে। এর কারণ হচ্ছে হঠাৎ করে মানসিক চাপ কমে যাওয়ার কারণে হরমোন নিঃসরণ হয়, এ কারণে আমাদের মাথা ব্যথা করে। আসুন জেনে নেই ইংল্যান্ডের চিকিৎসক তাসনিম জারা মাথা ব্যথা নিয়ে কী জানালেন।

মাথাব্যথা কেন হয়-
– ছুটির দিনে হঠাৎ করে বেশি ঘুমালে মাথাব্যথা করতে পারে। এছাড়া কম ঘুম হলেও মাথাব্যথা হয়। এ কারণে প্রয়োজন ঘুম দরকার।

– এছাড়াও চা কফি এবং কোলাজাতীয় পানীয় খেলে মাথাব্যথা হতে পারে। কারণ এতে আছে ক্যাফেইন যা মাথাব্যথা সৃষ্টি করতে পারে।
– পানি কম খেলেও মাথাব্যথা হতে পারে। আমরা অনেকেই শরীরের পানি স্বল্পতা বুঝতে পারি না। এ কারণে দিনে অন্তত ২ লিটার পানি পান করতে হবে।
– কোন বেলায় হঠাৎ করে খাবার না খেলে মাথা ব্যথা করতে পারে। সময় মতো খাবার খেতে হবে।
– সারাদিন শুয়ে বসে থাকার কারণেও মাথা ব্যথা হতে পারে। নিয়মিত শরীর চর্চা করতে হবে।
– মানসিক চাপ থেকে মাথা ব্যথা হতে পারে।
মাথা ব্যথার সমাধান-
মাথা ব্যথা বিভিন্ন ধরনের হয়। কোনটিকে টেনশন থেকে সৃষ্ট মাথাব্যথা বলে কোনটি মাইগ্রেনের কারণে হয়। মাইগ্রেনের মাথা ব্যথা কিনা তা আগে নিশ্চিত হতে হবে। টেনশনটাইপ মাথাব্যথার ক্ষেত্রে হাল্কা থেকে মাঝারি ব্যথা অনুভূত হয়। সাধারণত আলো বা আওয়াজে অসহ্যবোধ হয় না। বমিভাব থাকে না। যদি এগুলো দেখা যায় তাহলে সেটা মাইগ্রেনের কারণে হওয়ার সম্ভাবনা বেশি।
টেনশনের কারণে সৃষ্ট মাথাব্যথা হলে ১০০০ মিলিগ্রাম প্যারাসিটামল কার্যকরী। আমাদের দেশে ৫০০ মিলিগ্রামের ট্যাবলেট পাওয়া যায়। এই ট্যাবলেট দুটো ৪ থেকে ৬ ঘণ্টা বিরতিতে খাওয়া যেতে পারে। এক্ষেত্রে লক্ষ্য রাখা জরুরি মাথা ব্যথা না থাকলে কোন ওষুধ খাওয়ার দরকার নেই। বিশেষভাবে খেয়াল রাখতে হবে যেন ৮ টির বেশি ট্যাবলেট না খেতে হয়।
কখন ডাক্তার দেখাতে হবে-
এছাড়াও কিছু মাথাব্যথা আছে যেগুলো দেখা দিলে ডাক্তারের পরামর্শ নেওয়া প্রয়োজন।
– মাথা ব্যথা তীব্র হলে এবং কিছুদিন পরপর মাথাব্যথা হলে
– ব্যথার ওষুধ খেয়েও মাথাব্যথা না কমলে
– মাথার সামনের দিকে ব্যথা হলে এবং ব্যথাটি তীব্র হলে।
– মাথাব্যথার সাথে বমিভাব থাকলে।
– ৪০ এর বেশি বয়স হলে এবং হঠাৎ মাথাব্যথা শুরু হলে তা ক্যান্সারের লক্ষণ হতে পারে।
হাসপাতালে যেতে হবে কখন-
কিছু মাথাব্যথা আছে যা হলে সঙ্গে সঙ্গে হাসপাতালে যেতে হবে
– শুরুতেই ব্যথা তীব্র হলে
– মাথায় গুরুতর আঘাত পেলে
– কথা বললে দুর্বল লাগলে বা হাত-পা জড়িয়ে আসলে তা স্ট্রোকের লক্ষণ
– কাঁপুনি হলে জ্বর আসলে বা চামড়ায় র‍্যাশ হলে তা ব্রেনে রক্তক্ষরণের লক্ষণ।
– প্রচণ্ড মাথার কারণে চোখে অনেকসময় আমরা ঝাপসা দেখি। এটাতে দুই চোখই অন্ধ হবার সম্ভাবনা থাকে।
যুক্তরাজ্যপ্রবাসী ডা. তাসনিম জারার ইউটিউব চ্যানেল অবলম্বনে।

SHARE