‘মুক্তিযুদ্ধের চেতনা বাস্তবায়নে শেখ হাসিনার বিকল্প নেই’

251

মুক্তিযুদ্ধের চেতনার পূর্ণাঙ্গ বাস্তবায়ন এবং স্বাধীনতা বিরোধীমুক্ত বাংলাদেশ গড়ার জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কোনও বিকল্প নেই বলে মন্তব্য করেছেন পেশাজীবী সমন্বয় পরিষদের মহাসচিব অধ্যাপক ডা. কামরুল হাসান খান। তিনি বলেন, ‘উন্নয়নের ধারাবাহিকতা অব্যাহত রাখা ও মুক্তিযুদ্ধের চেতনা বজায় রাখতে শেখ হাসিনা সরকার প্রয়োজন।’ বৃহস্পতিবার (১৩ ডিসেম্বর) জাতীয় প্রেসক্লাবের কনফারেন্স লাউঞ্জে পেশাজীবী সমন্বয় পরিষদের ১৪তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী ও শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবস উপলক্ষে ‘জাতীয় নির্বাচন ২০১৮: মুক্তিযুদ্ধের চেতনা বাস্তবায়নে পেশাজীবীদের ভূমিকা’ শীর্ষক আলোচনা সভায় তিনি এসব কথা বলেন।

কামরুল হাসান খান বলেন, ‘দেশে মুক্তিযুদ্ধের চেতনা বিনাশ এবং প্রগতিশীল শক্তিকে ধ্বংস করার জন্য বিএনপি-জামায়াত জোট সরকারের এক সুদূরপ্রসারী ষড়যন্ত্র দেশকে অস্থিতিশীল করে তোলে। এমনি অবস্থায় দেশের প্রগতিশীল পেশাজীবীদের নিয়ে ২০১৪ সালের ১৩ ডিসেম্বর গঠিত হয় পেশাজীবী সমন্বয় পরিষদ। যুদ্ধাপরাধীদের বিচার, মুক্তিযুদ্ধের চেতনা বাস্তবায়ন, আইনের শাসন প্রতিষ্ঠা ও পেশাজীবীদের অধিকার প্রতিষ্ঠাসহ ২১ দফা দাবি নিয়ে সংগঠনটি দেশব্যাপী পেশাজীবীদের ঐক্যবদ্ধ করে কর্মকাণ্ড শুরু করে।’ এ দেশের পেশাজীবীদের দেশপ্রেমের ক্ষেত্রে এক দীর্ঘ ঐতিহ্য ও গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রয়েছে বলেও উল্লেখ করেন তিনি।

অনুষ্ঠানে আওয়ামী লীগের উপদেষ্টামণ্ডলীর সদস্য ও সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির সাবেক সভাপতি অ্যাডভোকেট ইউসুফ হোসেন হুমায়ুন বলেন, ‘শহর-গ্রাম, জেলা-উপজেলা সব জায়গার পেশাজীবীদের সজাগ থাকতে হবে। আমরা সবাই সতর্ক থাকবো, যাতে নির্বাচন সুষ্ঠু ও সঠিকভাবে হয়।’

অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন— কৃষিবিদ মাকসুদ আলম খান, অধ্যাপক মোহাম্মদ আলী, পেশাজীবী সমন্বয় পরিষদের কেন্দ্রীয় নেতা বদিউল আলম, কলেজ শিক্ষক সমিতির সভাপতি আসাদুল হক প্রমুখ।

SHARE