চমেক হাসপাতালে দুই দিনে ঔষধ দালাল চক্রের ‘দুই সদস্য আটক’

721

চট্টগ্রাম প্রতিনিধি, দেশরিভিউ: সংসদ সদস্য ও শিক্ষা উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) হাসপাতাল ব্যবস্থাপনা কমিটির সভাপতি মনোনীত হওয়ার পর চট্টগ্রামের জনসাধারনের প্রথম দাবী ছিল চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালকে ‘দালালমু্ক্ত’ করা।
স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের স্বাস্থ্য সেবা বিভাগের উপসচিব বিলকিস বেগম সাক্ষরিত এক অফিস আদেশের বরাত দিয়ে গত ২২ আগষ্ট মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল চমেকের ব্যবস্থাপনা কমিটির সভাপতি নির্বাচিত হওয়ার খবর বিভিন্ন গণমাধ্যমে উঠে আসার পর থেকে চট্টগ্রামের সর্বস্থরের জনসাধারন এ দাবী জানিয়ে আসছিলেন।

সর্বশেষ বুধবার (৭ অক্টোবর) চমেক হাসপাতালের ঔষধ দালাল চক্রের অন্যতম হোতা রবিউল হোসেনকে আটক করেছে পুলিশ। আটক রবিউল চমেক হাসপাতালে চাঁদাবাজিসহ বিভিন্ন ধরনের অপকর্মের সাথে জড়িত। তার নেতৃত্বে একটি সংঘবদ্ধ দালাল চক্র হাসপাতালের বিভিন্ন ওয়ার্ডে কাজ করে।  এর আগে মঙ্গলবার (৬ অক্টোবর) মোশারফ হোসেন নামের আরেক দালালকেও আটক করে পুলিশ। মোশারফ হোসেন বিভিন্ন রোগীর থেকে ঔষধের স্লিপ নিয়ে চড়াদামে প্রায় ১ হাজার ৫’শ টাকা থেকে ২ হাজার টাকা বেশি দামে কিনে দিয়ে গরীব রোগীদের হয়রানি করে আসছে।
জানা গেছে, চট্টগ্রাম মেডিকেল হাসপাতাল নিয়ন্ত্রন করে এমন এক চিকিৎসক নেতার আশ্রয়ে একটি দালাল চক্র চমেক হাসপাতালে বিভিন্ন রোগীদের থেকে ওষুধের স্লিপ নিয়ে চড়াদামে ঔষধ বিক্রি করে আসছিল। তারা চমেক হাসপাতালের বাইরে নির্দিষ্ট কয়েকটি ফার্মেসি থেকে চড়া দামে ঔষধ কেনার জন্য রোগী এবং তাদের স্বজনদের বাধ্য করে আসছে।

 

SHARE