মেয়র মহিউদ্দিন প্রকল্পের জন্য তদবির না করে আয়ের উৎস তৈরি করতেন

540


।।দেশরিভিউ চট্টগ্রাম।।
বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা মন্ডলীর সদস্য সদস্য আমির হোসেন আমু বলেছেন, মহিউদ্দিন চৌধুরী মেয়র থাকাকালীন সময়ে কোনোদিন প্রকল্পের জন্য তদবির করেন নি। যা ছিল তা দিয়ে আয়ের উৎস তৈরি করেছেন। আর উন্নয়নের জন্য কাজ করেছেন।

রোববার (১৫ ডিসেম্বর) নগরীর ইন্টারন্যাশনাল কনভেনশন সেন্টারে চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের উদ্যোগে আয়োজিত সাবেক মেয়র ও মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি এবিএম মহিউদ্দিন চৌধুরীর স্মরণসভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এই কথা বলেন ।

আমির হোসেন আমু বলেন, মহিউদ্দিন চৌধুরী রাজনীতি ছিল সৃষ্টিশীল ও সেবাধর্মী রাজনীতি। চট্টগ্রামের উন্নয়নে তাঁর অবদান ছিল। চট্টগ্রামকে ভালোবাসতেন মহিউদ্দিন চৌধুরী। তাঁকে আওয়ামীলীগের প্রেসিডিয়াম মেম্বার পদ দেয়া হয়েছিল। কিন্তু তিনি নেন নাই। তিনি চট্টগ্রামে থাকতে চাইতেন। বিরোধী দল থাকাকালিন দুইবার তিনি মেয়র হয়েছেন। তিনি ছিলেন চট্টলপ্রেমিক। চট্টগ্রামবাসীর জন্য তিনি যে নির্দশন গুলো রেখে গেছেন ওগুলো পর্থনিদর্শন। যেভাবে চট্টগ্রামে শিক্ষার আলোর ছড়িয়ে দিয়েছিলেন একইভাবে জনগণের কাছে পৌঁছে দিয়েছিলেন স্বাস্থ্য সেবা।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসাবে বক্তব্য রাখেন শিক্ষা উপমন্ত্রী ব্যারিস্টার মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল।

স্মরণসভায় মহানগর আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মাহতাব উদ্দিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে এবং প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক শফিকুল ইসলাম ফারুকের সঞ্চালনায় বক্তব্য রাখেন চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের মেয়র ও নগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আ জ ম নাছির উদ্দীন। উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান এমএ সালাম, মহানগর আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি খোরশেদ আলম সুজন, আলতাফ হোসেন চৌধুরী বাচ্চু, উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আতাউর রহমান ও মহানগর আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক বদিউল আলম। এছাড়া সভায় উপস্থিত ছিলেন দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মোছলেম উদ্দিন আহমেদ, সাধারণ সম্পাদক মফিজুর রহমান, মহানগর আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি নঈম উদ্দিন চৌধুরী, অ্যাডভোকেট ইব্রাহিম হোসেন চৌধুরী বাবুল, অ্যাডভোকেট সুনীল সরকার, সহ সভাপতি ও সিডিএ চেয়ারম্যান জহিরুল আলম দোভাষ, সংসদ সদস্য এমএ লতিফ, মহানগর আওয়ামী লীগের কোষাধ্যক্ষ ও সিডিএর সাবেক চেয়ারম্যান আবদুচ ছালাম।

 

SHARE