যৌন হয়রানীর অভিযোগে শিবির নেতা আটক, জামায়াত নেতা লাঞ্ছিত

1981


।।দেশরিভিউ-সিলেট ডেস্ক।।
ছাতকের গোবিন্দনগর ফজলিয়া ফাজিল মাদ্রাসার এক ছাত্রীকে যৌন হয়রানির অভিযোগে ওই মাদ্রাসার শিক্ষক ও সরকারি রাজেন্দ্র কলেজ ছাত্রশিবিরের সাবেক সভাপতি রাজিবুর রহমানকে আটক করেছে পুলিশ। এছাড়াও এই যৌন নির্যাতনের ঘটনায় বিচার না করায় লাঞ্ছিত হয়েছেন সিলেট মহানগর জামায়াতে ইসলামীর কর্ম পরিষদ সদস্য এবং মাদ্রাসাটির অধ্যক্ষ মাওলানা আব্দুস সালাম আল মাদানী।

ঘটনার বর্ননায় ভিকটিম শিক্ষার্থী দেশরিভিউকে জানান, ২০১৮ সালের অক্টোবর মাসে শিক্ষক রাজিবুর রহমানের বাসায় কোচিং করতে যাই। এ সময় তিনি আমার সাথে অশালীন আচরণ করার পাশাপাশি, শারীরিকভাবে লাঞ্ছিত করার চেষ্টা করেছেন এবং বিভিন্ন প্রলোভন দেখিয়ে কুপ্রস্তাবও দিয়েছেন।

যার ফলে ৬ দিন প্রাইভেট পড়ে ওই শিক্ষকের কাছে পড়া বন্ধ করে দিয়েছিলাম আমি। পরে অধ্যক্ষের দুই দফা বিচার চাইলে তিনি বিচার করেননি। অধ্যক্ষকে বিচার দেয়ার পর ইংরেজী শিক্ষক
(রাজিবুর রহমান) আমার উপর আরো বেশী ক্ষুব্ধ হওয়ার কারনে লেখাপড়া বন্ধ করে দিয়ে এ বছর আলিম পরীক্ষায়ও আমি অংশ নিতে পারেনি।

জানা গেছে গত শনিবার সকালে উপজেলার গোবিন্দনগর ফজলিয়া ফাজিল মাদরাসায় ক্লাস চলাকালীন সময়ে নির্যাতনের শিকার ঐ ছাত্রী আলীম পরীক্ষায় অংশগ্রহন করতে না পেরে মাদরাসার অধ্যক্ষ সিলেট মহানগর জামায়াতে ইসলামীর কর্ম পরিষদ সদস্য মাওলানা আব্দুস সালাম আল মাদানীকে লাঞ্ছিত করেন। এতে মাদরাসায় উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়লে ছাতক থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ঘটনাস্থলে পৌঁছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে নিয়ে আসেন।

পরবর্তীতে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আবেদা আফসারীর কার্যালয়ে ডাকা হয় অধ্যক্ষ ও ছাত্রীকে। এ ঘটনায় ওই শিক্ষার্থী বাদী হয়ে শনিবারই থানায় লিখিত অভিযোগ দেওয়ার পর ঐদিন সন্ধ্যায় শিবির নেতা রাজিবুরকে আটক করে পুলিশ।

SHARE