রাজসিক অভিষেক: ৩ ম্যাচে করলেন ১৪৩ রান

134


।।দেশরিভিউ স্পোর্টস ডেস্ক।।

বাংলাদেশে জাতীয় ক্রিকেট দলের নতুন তুর্কি মোহাম্মদ নাঈম শেখ। তামিমের জায়গাতে ভারতগামী বাংলাদেশ জাতীয় দলে হঠাৎ ডাক পেয়েছিলেন ২০ বছরের এই তরুন। সুযোগ পেয়ে নিজের ক্রিকেট ক্যারিয়ারের রাজসিক সূচনা করতে ভুল করেনি শেষ ঢাকা প্রিমিয়ার লিগের দ্বিতীয় সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহক ছেলেটি।

ভারতের বিপক্ষে তিন ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজে বাংলাদেশের পক্ষে সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহক মোহাম্মদ নাঈম শেখ। ৩ ম্যাচে ৪৭ গড়ে ১৪৩ রান করেছেন তিনি। দুর্দান্ত পারফরম্যান্সে নজর কাড়লেন বিশ্ব ক্রিকেটে এ তরুণ।

ঘরোয়া লীগে টপ অর্ডারে খেলা নাইম শেখ এতো তারাতারি জাতীয় দলে জায়গা করে নিবে হয়তো নিজেও ভাবেনি। কারন তামিম ইকবালের সঙ্গী হয়ে সীমিত ওভারের ম্যাচে এই জায়গাটায় লড়াই করে যাচ্ছেন লিটন দাস, সৌম্য সরকার, ইমরুল কায়েস। কিন্তু ভারত সফরের আগে নিজের তামিম নিজেই নাম প্রত্যাহার করে নেওয়াতে ডাক পড়েছিলো এই তরুন ব্যাটসম্যানের। এর আগে শ্রীলঙ্কা ‘এ’ দলের হয়ে তার দুর্দান্ত ব্যাটিং দলে ডাকতে বাধ্য করে বিসিবির নির্বাচকদের।

এরপর ভারত সফরে তামিম ইকবাল না থাকায় একাদশে সুযোগ মিলে প্রথম থেকেই। প্রথম ম্যাচে টি-টোয়েন্টি সুলভ ব্যাটিং করতে পারেন নি। তবে, দল জিতে যাওয়ায় ২৮ বলের ২৬ রানটাকেও যথেষ্ট মনে হয়েছিলো তখন। কিন্তু ৯২ স্ট্রাইক রেটে ২ চার এক ছক্কার উইলোবাজিতে জানান দিয়েছিলেন নিজের আগমনের।

দ্বিতীয় ম্যাচে উন্নতিটা ছিলো চোখে পড়ার মতো। দলের প্রয়োজনে ধীরস্থির ক্রিকেট খেললেও, ঝুলিতে ছিলো ৫টি চারের মার ও ৩৬ রান। এদিন স্ট্রাইক রেট উঠেছিলো ১০০’র ওপর।

আর শেষ টি-টুয়েন্টিতে খেললেন রাজসিক ইনিংস। ১০ চার ২ ছক্কায় ৪৮ বলে ৮১ রানের ঝলমলে ইনিংসটা তাই হয়ে থাকলো এক ট্র্যাজিক হিরোর গল্প।

ভারতের মাঠে বসা হাজারো দর্শক দেখলেন ২০ বছর বয়সী এক বাংলাদেশীর প্রতিভা ও সামর্থ্যের বিজ্ঞাপণ। আর বাংলাদেশের দর্শকরা টেলিভিশনে দেখলেন আগামীর জন্য প্রস্তুত নতুন এক ‘ক্রিকেট হিরো’

SHARE