শিশু ধর্ষণ ও হত্যা মামলার রায়ে ‘সিরিয়াল শিশু ধর্ষক’ আরশাদুরের মৃত্যুদন্ড

357
সিরিয়াল শিশু ধর্ষক আরশাদুর

।।শাহনেওয়াজ চৌং, চট্টগ্রাম।।
২০১৬ সালের ২০ ডিসেম্বর ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সদর উপজেলার কাসাইট্যা গ্রামে সাত বছরের এক শিশুকে ধর্ষণের পর হত্যার দায়ে আরশাদুর রহমান নামে এক সিরিয়াল ধর্ষকের মৃত্যুদণ্ড দিয়েছেন চট্টগ্রামের একটি আদালত। সোমবার (১৩ মে) চট্টগ্রাম বিভাগীয় দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালের ভারপ্রাপ্ত বিচারক আব্দুল হালিম এ রায় দেন। রায়ে আদালত তাকে এক লাখ টাকা অর্থদণ্ড দিয়েছেন। আদালতের পাবলিক প্রসিকিউট অ্যাডভোকেট মো. আইয়ুব খান এসব তথ্য জানান।

আসামী আরশাদুরের বিরুদ্ধে নিজ এলাকায় ইতিপুর্বে একাধিক শিশু ধর্ষনের অভিযোগ ছিলো বলেও নিশ্চিত করেছে এলাকাবাসী। মৃত্যুদন্ডপ্রাপ্ত আসামি আরশাদুর রহমান বর্তমানে কারাগারে রয়েছেন।

আদালতের পাবলিক প্রসিকিউটর মো. আইয়ুব খান জানান, আসামী আরশাদুর ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার সদর উপজেলা কাছাহাট এলাকার আবদুল কাদিরের ছেলে।
শিশুকে ধর্ষণের পর হত্যার বিষয়টি আদালতে প্রমাণিত হওয়ায় বিচারক তাকে মৃত্যুদণ্ড দিয়েছেন। ১৭ জনের সাক্ষ্যগ্রহণ এবং আসামির দোষ স্বীকার করে দেওয়া জবানবন্দির ভিত্তিতে এ রায় দিয়েছেন আদালত।’

আদালত সূত্র বলছে, ২০১৬ সালের ২০ ডিসেম্বর ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সদর উপজেলার কাসাইট্যা গ্রামে দুই দিনব্যাপী ওয়াজ মাহফিল ও গ্রাম্য মেলার আয়োজন করা হয়। ওই মেলায় আসামি আরশাদুর প্রসাধনী সামগ্রীর একটি দোকান দেয়। ওই এলাকার শফিকুল ইসলামের সাত বছরের মেয়ে তোবা মনি ওই দোকান থেকে চুলের বেন্ড কিনে সন্ধ্যায় বাড়ি ফেরার পথে আরশাদ তার পিছু নেয়। তাকে তুলে পাশের একটি জঙ্গলে নিয়ে ধর্ষণ করে। পরে তাকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করে লাশ জঙ্গলে ফেলে চলে যায়।

এ ঘটনায় ২০১৬ সালের ২১ ডিসেম্বর শিশুটির বাবা শফিকুল ইসলাম নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনের ৯ (২) ধারায় মামলা দায়ের করেন। ২০১৭ সালের ১৩ জুন ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা আদালতে আসামির বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠনের পর, ২০১৮ সালের জানুয়ারিতে মামলাটি বিচারের জন্য চট্টগ্রাম বিভাগীয় দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালে স্থানান্তর করা হয়।

SHARE