শুভ জন্মদিন সাইলেন্ট কিলার মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ

169

।দেশরিভিউ।

পুরো নাম- মোহাম্মদ মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। বাংলাদেশের তারকা ক্রিকেটার, যিনি সাইলেন্ট কিলার হিসেবে পরিচিত। জাতীয় দলের অন্যতম সিনিয়র সদস্য। অলরাউন্ডার, কার্যকরী মিডল অর্ডার ব্যাটসম্যান ও অকেশনাল অফ স্পিন বোলার হিসেবে খেলেন।

আজ তার শুভ জন্মদিন। ১৯৮৬ সালের ৪ ফেব্রুয়ারি তিনি জন্মগ্রহণ করেন। মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ বাংলাদেশের পক্ষে ক্রিকেট বিশ্বকাপের প্রথম সেঞ্চুরিয়ান।

এ ছাড়া প্রথম বাংলাদেশি ক্রিকেটার হিসেবে ওয়ানডে বিশ্বকাপে টানা দ্বিতীয় সেঞ্চুরি করার গৌরব অর্জন করেন এ ব্যাটসম্যান।

মাহমুদউল্লাহর প্রথম ওয়ানডে অভিষেক হয় ২০০৭ সালের জুলাই মাসে। বাংলাদেশ দলের শ্রীলংকা সফর ছিল সেটি।

সফরের ৩য় ওয়ানডে ম্যাচে দেশের হয়ে প্রথম ২২ গজে ব্যাট হাতে তুলে নেন এই কৃতী ক্রিকেটার। এর পর থেকে দেশের হয়ে প্রায় ধারাবাহিকভাবে তিনি পারফর্ম করে চলেছেন।

২০০৭ সালেই কেনিয়ায় অনুষ্ঠিত চার জাতি সিরিজ এবং আইসিসি বিশ্বকাপ টুয়েন্টি-২০(২০০৭) প্রতিযোগিতায় বাংলাদেশ স্কোয়াডে ছিলেন তিনি।

২০১৪ সালের ১৫ জুন সফরকারী ভারতের বিপক্ষে অনুষ্ঠিত ১ম একদিনের আন্তর্জাতিকে ১০ম বাংলাদেশি হিসেবে মাহমুদউল্লাহ তার শততম ওডিআই খেলেন।

থেমে নেই তার ব্যাট ও বল। ১৬৮ ম্যাচ খেলে ওডিআই ক্যারিয়ারে তার ঝুলিতে জমেছে তিন হাজার ৬৩৭ রান। তিনটি শতকসহ ২০টি অর্ধশতক রয়েছে তার এ রান ভাণ্ডারে। ব্যাটিং গড় ৩৩.৯৯। উইকেট পেয়েছেন ৭৫টি।

৭৬টি টি-২০ খেলে তিনি ৮৩২ রান করেছেন। উইকেট পেয়েছেন ৩১টি।

মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের টেস্ট অভিষেক হয় ২০০৯ সালের ৯ জুলাই। আর্নোস ভ্যাল স্টেডিয়ামে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে অনুষ্ঠিত ১ম টেস্টে তার টেস্ট অভিষেক ঘটে। অভিষেক টেস্টেই রিয়াদ বিপক্ষ দলের পাঁচজনকে আউট করে কৃতিত্ব দেখান।

ফলে তিনি তৃতীয় বাংলাদেশি বোলার হিসেবে টেস্ট অভিষেকেই পাঁচ উইকেট লাভ করেন। তার ওই ক্রীড়া নৈপুণ্যে বাংলাদেশ দল ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে টেস্টে জয়লাভ করে।

২০১৫ সালের বিশ্বকাপে রিয়াদের পারফম্যান্স চোখ ধাঁধানো। ৯ মার্চ অ্যাডিলেড ওভালে অনুষ্ঠিত গ্রুপ পর্বের ৫ম খেলায় ইংল্যান্ডের বিপক্ষে তিনি অভিষেক সেঞ্চুরি করেন, যা ছিল বিশ্বকাপের ইতিহাসে প্রথম বাংলাদেশি ক্রিকেটার হিসেবে প্রথম সেঞ্চুরি।

বাংলাদেশের পক্ষে বিশ্বকাপের যে কোনো উইকেটে মুশফিকুর রহিমকে সঙ্গে নিয়ে ১৪১ রানের সর্বোচ্চ জুটি গড়ার রেকর্ড রয়েছে রিয়াদের।

১৩ মার্চ গ্রুপ পর্বে দলের সর্বশেষ খেলায় নিউজিল্যান্ডের সঙ্গে অপরাজিত ১২৮* রান করে নিজস্ব দ্বিতীয় শতরান করেন রিয়াদ।

এ নিয়ে তিনি বিশ্বকাপে ধারাবাহিকভাবে দুই খেলায় শতক হাঁকানোর গৌরব অর্জন করেন, যা এর আগে কোনো বাংলাদেশি খোলোয়াড় করতে পারেননি।

চলছে বাংলাদেশ বনাম শ্রীলংকার টেস্ট সিরিজের প্রথম ম্যাচ। প্রথম ইনিংসে ৮৩ রানের অনবদ্য ইনিংস খেলে মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ সপ্তম বাংলাদেশি ব্যাটসম্যান হিসেবে দুই হাজার রানের ক্লাবে নিজের নাম লিখেছেন।

টেস্ট ক্যারিয়ারের ৪৩ টেস্টের ৮১ ইনিংসে তার গড় রান ৩১.৬৭। তিনটি সেঞ্চুরি রয়েছে তার টেস্ট ক্যারিয়ারে। টেস্ট ক্যারিয়ারে জমা পড়েছে ২৪০৭ রান।

SHARE