শোকাবহ আগষ্ট শুরু: আজো রক্ত ঝড়ছে বাংলাদেশের বুকে

1920

।।দেশরিভিউ নিউজরুম।।

শুরু হলো শোকের মাস আগস্ট।

সদ্য স্বাধীন দেশ। নানা সমস্যা ও চক্রান্ত মোকাবিলা করে যুদ্ধবিধ্বস্ত দেশটি যখন ঘুরে দাঁড়াচ্ছে ঠিক তখনই পরাজিত শত্রুদের দোসররা হানে চূড়ান্ত আঘাত। ১৯৭৫ সালের ১৫ই আগস্ট জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে সপরিবারে হত্যা করে নেতৃত্ব শূন্য করা হয়েছিল বাঙালি জাতিকে। পরে রুদ্ধ করা হয়েছিল তাঁর ঘাতকদের বিচারের পথও। মাসজুড়ে বাঙালি জাতি গভীর শ্রদ্ধার সঙ্গে স্মরণ করবে সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও তাঁর পরিবারের অন্যান্য সদস্যদের।

১৯৭৫ সালের ১৫ই আগস্টের সকাল আসে শোক সংবাদ নিয়ে। বেতারে ছড়িয়ে পড়ে ঘাতকের উদ্ধত কণ্ঠ- শেখ মুজিবকে হত্যা করা হয়েছে। আর ধানমন্ডির ৩২ নম্বর সড়কের বাড়ির সিঁড়িতে বুকে বুলেট নিয়ে পড়ে থাকেন স্বাধীনতার মহানায়ক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান।

শুধু বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করেই ক্ষান্ত হয়নি বিপথগামী সেনাসদস্যরা। তাদের হাতে একে একে প্রাণ দিয়েছেন বঙ্গবন্ধুর সহধর্মিণী ফজিলাতুন্নেছা মুজিব, সন্তান শেখ কামাল, শেখ জামাল, শিশুপুত্র শেখ রাসেল, পুত্রবধূ সুলতানা কামাল ও রোজি জামাল।

সে রাতে বাঁচতে পারেননি বঙ্গবন্ধুর সহোদর শেখ নাসের, ভগ্নিপতি আবদুর রব সেরনিয়াবাত, ভাগ্নে যুবনেতা ও সাংবাদিক শেখ ফজলুল হক মনি, তাঁর সহধর্মিণী আরজু মনিসহ পরিবারের ১৬ সদস্য ও আত্মীয়স্বজন। বিদেশে থাকায় সেই কালরাতে বেঁচে যান বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনা ও শেখ রেহানা।

শোকাবহ সেই হত্যাকাণ্ডকে ঘিরে জাতি আগস্ট মাসজুড়ে গভীর শোক ও শ্রদ্ধার সঙ্গে স্মরণ করে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও ১৫ আগস্টের শহীদদের। শোকের মাস এলেই যেনো বাঙ্গালীর অন্তরে আজো রক্ত ঝড়ছে, যেনো আজো রক্ত ঝড়ছে বাংলাদেশের বুকে।

শোকের এই আগস্ট মাসজুড়ে প্রতি বছরের মতো নানা কর্মসূচি ঘোষণা করেছে আওয়ামী লীগ এবং বন্ধুপ্রতীম সংগঠনগুলো। এসবের মধ্যে রয়েছে দোয়া ও মিলাদ মাহফিল, আলোচনা সভা ও চিত্র প্রদর্শনী।

SHARE