সংখ্যালঘু পরিবারের গাছ কেটে নেবার প্রতিবাদে অনশন

508
ফাইল ছবি

।।সাজিদুল ইসলাম শোভন, নড়ইল।।

নড়াইলের কালিয়া উপজেলার যোগানিয়া গ্রামের সুকলাল সিকদার (৭০) নামে এক সংখ্যালঘু পরিবারের ২ টি মেহগনি গাছ কেটে নেবার অভিযোগ উঠেছে এক মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের কার্যনির্বাহী কমিটির বিরুদ্ধে। সুকলাল যোগানিয়া গ্রামের মৃত খুদিরাম সিকদারের ছেলে।

সংখ্যালঘু পরিবার হওয়ায় সরাসরি প্রতিবাদ করতে না পেরে প্রতিবাদ হিসাবে ৭ দিন অনাহারে রয়েছে। অনাহার আর মনের কষ্টে মানবেতর দিন কাটাচ্ছে ৭০ বছর বয়সী সুকলাল। স্থানীয় সূত্রে জানা জায়, গত ২১ জুন শুক্রবার সকালে সুকলালের বসৎভিটার পাস থেকে ২টি মেহগনি গাছ কেটে নিয়েছে স্থানীয় মাধ্যমিক বিদ্যালয় যোগানিয়া ডি এন মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের কার্যনির্বাহী কমিটির লোক। সুকলাল সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের লোক হওয়ায় ভয়ে প্রতিবাদ করতে পারেনি। গাছ ২ টির আনুমানিক মূল্য প্রায় ৩৫ হাজর টাকা। ঐ দিন (২১ জুন) থেকে সম্পুর্ন অনাহারে দিন কাটাচ্ছে সুকলাল। সুকলাল সিকদার বলেন, তিনি ৪০ বছর আগে যোগানিয়া মৌজায় ৬.৫শতক জমি ক্রয় করেন একই গ্রামের মহসিন ওরফে মোচন শেখের ছেলেদের কাছ থেকে যার দাগ নং ১১৫০ খতিয়ান নং ১৩৪০ ও ৩২০৯। তার বড় ছেলে জোরপূর্বক কেটে নেওয়া গাছগুলি লাগিয়েছিলো। ৪০ বছর ধরে তিনি ঐ জমি ভোগদখল করছেন বলে তিনি জানান।

যোগানিয়া ডি এন মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের কার্যনির্বাহী কমিটির সভাপতি মোঃ মাহাবুব আলম বলেন, যে জমি থেকে গাছ কাটা হয়েছে সেটি ঐ বিদ্যালয়ের সম্পত্তি। বিদ্যালয়ের গাছ বিদ্যালয়ের প্রয়োজনে কাটা হয়েছে। সুকলাল কেন ঐ জমিতে দাবি করছে এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, বিদ্যালয়কে ঐ জমি দান করেছে ইউনুছ আলি তবে ইউনুস আলীর শরিকদের কাছ থেকে সুকলাল সিকদার জমি ক্রয় করেছে বলে তিনি জানিয়েছেন।
কালিয়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো: নাজমুল হুদা বলেন, তিনি গাছ কেটে নেবার বিষয়ে কোন অভিযোগ পাননি, অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন তিনি। মোচন শেখের ৭ দিন অনাহারে এমন খবর শুনে নিজে সরজমিনে তদন্ত করবেন এবং মোচন শেখের জমি প্রমানিত হলে তাকে ক্ষতিপুরন দেবার আশ্বাস দিয়েছেন তিনি।

SHARE