সতর্কীকরণঃ কাপ্তাই হ্রদের ১৬ টি গেইট ১ ফুট করে খুলে দেওয়া হয়েছে।

    658

    ||দেশ রিভিউ আরিফ উদ্দিন||

    কাপ্তাই হ্রদের পানি স্বাভাবিকের চেয়ে ২০ ফুট বেড়ে ১০৬.২ ফুটে উন্নীত হওয়ায় ১৬টি গেইট ১ ফুট করে খুলে দেবে কাপ্তাই কর্তৃপক্ষ। সেকেন্ডে ১৮ হাজার কিউসেক গতিতে কর্ণফুলী নদীতে পানি ছাড়বে আজ রাত থেকে। ফলে চট্টগ্রামের হাটহাজারী, রাউজান, রাঙ্গুনিয়া, বোয়ালখালী ও পটিয়া প্লাবিত হতে পারে, নদী চ্যানলে তীব্র স্রোতের কারণে নৌযান চলাচল ঝুঁকিপূর্ণ হবে।

    মঙ্গলবার বিকেলে কাপ্তাই জল বিদ্যুৎ কর্তৃপক্ষের জারি করা এক সতর্কীকরণ বিজ্ঞপ্তিতে এ বিষয়ে জানানো হয়েছে।

    বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, কাপ্তাই বাঁধের সর্বোচ্চ ধারণ ক্ষমতা ১০৯ এমএসএল। বর্তমানে স্বাভাবিকের চেয়ে হ্রদে ২০ ফুট পানি বেশি রয়েছে। অতিবৃষ্টির কারণে উজান থেকে ধেয়ে আসছে পাহাড়ি ঢল। বাড়তি পানির চাপ সামলাতে আজ রাতে বাঁধের ১৬টি গেট একফুট করে একসঙ্গে খুলে দেয়া হবে। প্রতি সেকেন্ডে কর্ণফুলী নদীতে ছাড়া হবে ১৮ হাজার কিউসেক পানি । এ কারণে চট্টগ্রামের হাটহাজারী, রাউজান, রাঙ্গুনিয়া, বোয়াখালী ও পটিয়া প্লাবিত হতে পারে, নদী চ্যানলে তীব্র স্রোতের কারণে নৌযান চলাচল ঝুঁকিপূর্ণ হবে।

    কাপ্তাই পানি বিদ্যুৎ কেন্দ্রের ব্যবস্থাপক ড. এম এম এ আব্দুজ্জাহের জানান, টানা বৃষ্টি আর পাহাড়ি ঢল নামতে থাকায় রাঙ্গামাটির কাপ্তাই হ্রদের পানির উচ্চতা ক্রমাগত বাড়ছে। এতে কাপ্তাই পানি বিদ্যুৎ কেন্দ্রের উৎপাদন বেড়েছে। পানি বাড়ায় বিদ্যুৎ কেন্দ্রের পাঁচটি ইউনিটের সবগুলো দিয়ে একযোগে বিদ্যুৎ উৎপাদন হচ্ছে।

    দেশ রিভিউ, আরিফ

    SHARE