সম্রাট ও আরমানের ৬ মাসের কারাদণ্ড

67

।দেশরিভিউ-জাতীয়।

বন্যপ্রাণী সংরক্ষণ ও নিরাপত্তা আইনে ইসমাইল হোসেন চৌধুরী সম্রাট ও আরমানের ৬ মাসের কারাদণ্ড।

বণ্যপ্রাণী সংরক্ষণ ও নিরাপত্তা আইনে ক্যাসিনো কাণ্ডে বিতর্কিত যুবলীগ নেতা ইসমাইল হোসেন চৌধুরী সম্রাট ও আরমানকে ৬ মাসের কারাদণ্ডাদেশ দিয়েছেন র‌্যাবের ভ্রাম্যমাণ আদালত। ঢাকা মহানগর দক্ষিণ যুবলীগের সভাপতি ইসমাইল হোসেন চৌধুরী সম্রাটের কাকরাইলে অভিযান শেষে এ রায় দেয়া হয়। বন্যপ্রাণীর চামড়া ও মাদক রাখার দায়ে এ রায় দেয়া হয়।

অভিযানের সময় সম্রাটের কার্যালয় থেকে মদ, বিপুল পরিমাণ ইয়াবা, বিদেশি পিস্তল, দু’টি ইলেকট্রনিক শক মেশিন এবং দুটি ক্যাঙ্গারুর চামড়া উদ্ধার করে র‌্যাব। এছাড়াও, তাদের বিরুদ্ধে রমনা থানায় অস্ত্র ও মাদক আইনে মামলা দায়ের করা হবে। রবিবার ভোরে, তাদের কুমিল্লার চৌদ্দগ্রাম থেকে আটক করা হয়।

এদিকে সম্রাট ও আরমানকে যুবলীগ থেকে বহিস্কার করা হয়েছে। সম্রাটের বিরুদ্ধে ক্যাসিনো পরিচালনা করে বিপুল অর্থ উপার্জনের অভিযোগ রয়েছে।

এর আগে, গত ২৩শে সেপ্টেম্বর তার ব্যাংক হিসাব স্থগিত ও তলবের নির্দেশ দেয় বাংলাদেশ ব্যাংকের ফিন্যান্সিয়াল ইন্টেলিজেন্স ইউনিট। এরপর, ২৪শে সেপ্টেম্বর তার বিদেশ যাওয়ায় বিষয়ে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যুবলীগ নেতাকর্মীদের নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশের চার দিনের মাথায় গত ১৮ই সেপ্টেম্বর থেকে রাজধানীতে ক্যাসিনো বিরোধী অভিযান শুরু করে র‌্যাব। ওইদিনই ঢাকা মহানগর দক্ষিণ যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক খালেদ মাহমুদ ভূঁইয়াকে গ্রেপ্তার করা হয়। এর দুদিন পর রাজধানীর নিকেতনের নিজ অফিস থেকে গ্রেপ্তার করা হয় যুবলীগ নেতা জি কে শামীমকে।

SHARE