সরকার পতন আন্দোলনের হুমকি দিয়ে পিছু হটলো বিএনপি

279

।।দেশরিভিউ, নিউজরুম।।

আপিল বিভাগে জিয়া চ্যারিট্যাবল ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়ার জামিন আবেদনের শুনানি পেছানোর পর রাজধানীতে একটি মাত্র প্রতিবাদ মিছিল করে বিএনপি। জামিন শুনানি পেছানোয় বিএনপি মহাসচিব জানান, চূড়ান্তভাবে খালেদা জিয়ার মুক্তি নিয়ে সরকার কী করে তা দেখেই কর্মসূচির সিদ্ধান্ত নেবেন তারা। একইসঙ্গে খালেদা জিয়াকে জামিন না দেয়ায় ক্ষোভ জানান বিএনপি নেতারা।

যদিও দলের এক শীর্ষ নেতা আগেই ঘোষণা দিয়েছিলেন, দলীয় প্রধানের জামিন না হলে সরকার পতন আন্দোলনের একদফা আন্দোলনে নামবে বিএনপি। কয়েকদিন আগে এক অনুষ্ঠানে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড.খন্দকার মোশাররফ হোসেন বলেন, ৫ই ডিসেম্বরের মধ্যে খালেদা জিয়াকে মুক্তি না দিলে এই দেশে একতরফা আন্দোলন হবে। আর এই আন্দোলন হবে এই সরকারকে পতনের আন্দোলন।

এমন ঘোষণা দিলেও আজ নয়াপল্টনের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ও ছিল নিরুত্তাপ। তবে, সংবাদ সম্মেলনে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর অভিযোগ করেন, খালেদা জিয়ার জামিন আবেদনের শুনানি আরেকদফা পেছানোয় সরকারের হাত রয়েছে। তিনি বলেন, ‘আপিল বিভাগের এই সিদ্ধান্ত আজকে সমস্ত জাতি শুধু হতাশই হয়নি, বিক্ষুব্ধ হয়েছে। আমরা উদ্বিগ্ন-বিক্ষুব্ধ। দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার স্বাস্থ্যের ক্রমাবনতিতে গোটা জাতি আজকে উদ্বিগ্ন। অবিলম্বে উন্নত চিকিৎসার জন্যে তার মুক্তিটা অবশ্যই প্রয়োজন।

তার চিকিৎসা না হওয়ার ফলে স্বাস্থ্যের ক্রমাবনতির সমস্ত দায়-দায়িত্ব ‘অনির্বাচিত সরকার ও সরকারপ্রধানকে’ নিতে হবে বলেও জানান তিনি।আন্দোলনের বিষয়ে এক প্রশ্নের জবাবে মির্জা ফখরুল বলেন, ‘আমরা অপেক্ষা করবো। সাত দিনের কথা বলা হয়েছে। এর মধ্যে মুক্তি না দিলে স্থায়ী কমিটি বসে সিদ্ধান্ত নেবে।

SHARE