সামাজিক সুরক্ষা সুবিধা পাবেন নতুন ১৬ লাখ ১৫ হাজার নাগরিক

138

‌।। দেশরিভিউ, সংবাদ ।।

১০৪৪ কোটি বাড়িয়ে সামাজিক নিরাপত্তায় বাজেট বরাদ্দ ৬০৯৬ কোটি টাকা।

আগামী অর্থবছরে আরও ১৬ লাখ ১৫ হাজার মানুষকে সামাজিক নিরাপত্তা বেষ্টনির আওতায় নিয়ে আসবে সরকার। এজন্য এ খাতে এক হাজার কোটি টাকা বাড়তি খরচ হবে। সুবিধাভোগীর সংখ্যা বাড়লেও, ভাতার পরিমাণ থাকছে।আগের মতোই। অর্থনীতিবিদরা বলছেন, করোনা সংক্রমণের কারণে, জনগণের যে পরিমান রাষ্ট্রীয় সুরক্ষা প্রয়োজন বেড়েছে, সে তুলনায় আগামী বাজেটে বরাদ্দ বাড়েনি।

১৯৯৭-৯৮ অর্থবছর বয়স্কভাতা দিয়ে আসছে বাংলাদেশ। পুরুষদের ক্ষেত্রে বয়স হতে হবে ৬৫ বা তারচেয়ে বেশি, নারীদের ক্ষেত্রে নূন্যতম ৬২। বর্তমানে এমন ৪৪ লাখ নাগরিককে মাসে ৫’শ টাকা করে দেয় বাংলাদেশ। খরচ হয় ২ হাজার ৬৪০ কোটি টাকা।

জুলাই থেকে এই সংখ্যা আরও ৮ লাখ ৬০ হাজার বাড়ানোর পরিকল্পনা করছে সরকার। বরাদ্দও  বাড়ছে ৫’শ কোটি টাকা। সবমিলে আগামী অর্থবছর ৫২ লাখ ৬০ হাজার বয়সী নাগরিকের জন্য বাজেটে ৩ হাজার ১৫৬ কোটি টাকা বরাদ্দ রেখেছেন অর্থমন্ত্রী।

সমাজকল্যাণ মন্ত্রনালয়ের সচিব জয়নুল বারী বলেন, আমরা একশ উপজেলায় শতভাগ বৃদ্ধ এবং স্বামী পরিত্যক্ত বা বিধবাদের এই ভাতা দেয়ার পরকিল্পনা করেছি। এছাড়া সারাদেশে প্রতিবন্ধিরা এই ভাতা পাবে। এছাড়া তৃতীয় লিঙ্গের মানুষেরাও এই ভাতার অন্তর্ভুক্ত হবে।

সানেমের নির্বাহী পরিচালক সেলিম রায়হান বলেন, যে পরিমান টাকা বাড়ানোর প্রস্তাবনা আছে আমার কাছে মনে হয় তা যথেষ্ট নয়। এই মহামারির কারণে একটি বিশাল জনগোষ্ঠী দারিদ্র সীমার নিচে পড়তে যাচ্ছে। যারা দরিদ্র ছিল না তারা নতুন করে দরিদ্র হচ্ছে।

শুধু বয়স্ক ভাতাই নয়, সামাজিক নিরাপত্তার বাকি দুই কর্মসূচির পরিধিও বড় হচ্ছে। বিধবা কিংবা স্বামী কর্তৃক নিগৃহিত নারী সুবিধাভোগীর সংখ্যা বেড়ে হচ্ছে ২২ লাখ। সাড়ে ১৫ লাখ মানুষের বদলে, প্রতিবন্ধী হিসেবে আর্থিক সহয়তা পাবেন ১৮ লাখ। সবমিলে, নতুন অর্থবছরে শুধু এই তিন কর্মসূচিতেই সুবিধাভোগীর সংখ্যা বাড়বে ১৬ লাখেরও বেশি, ভাতা পাবেন ৯২ লাখ ৬০ হাজার নাগরিক। এক হাজার ৪৪ কোটি টাকা বাড়িয়ে তাদের জন্য ব্যয় হবে ৬ হাজার ৯৬ কোটি টাকা।

সানেমের নির্বাহী পরিচালক সেলিম রায়হান বলেন, সামাজিক সুরক্ষা খাতে যে অনিয়ম এবং দুর্নীতির খাতগুলো আছে সেগুলো আমাদের চিহ্নিত করতে হবে। আমাদের যতটুকু সম্ভব অনিয়ম ও দুর্নীতি থেকে এই সংকটের সময় দরিদ্র জনগোষ্ঠীকে সহযোগিতা করা।

SHARE